মেসি ন’য়, নেইমার-এমবাপেতে মনোযোগী পিএসজি

প্রকাশিত: জানু ১২, ২০২১ / ১১:৪৬অপরাহ্ণ
মেসি ন’য়, নেইমার-এমবাপেতে মনোযোগী পিএসজি

বার্সেলোনাতে মেসি পরিস্থিতির দিকে সার্বক্ষণিক নজর রাখলেও আপাতত দলের মূল দুই তারকা নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপেকে নতুন চুক্তি স্বাক্ষর করানোই পিএসজির মূল লক্ষ্য। খবর ইএসপিএনের।

সামনের জুনে চাইলেই বার্সার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে পারেন লিওনেল মেসি। সেই ক্ষেত্রে স্বাভাবিকভাবেই মেসির নতুন গন্তব্য হওয়ার দৌড়ে থাকবে পিএসজি। স্বদেশী মেসিকে দলে ভেড়াতে আর্জেন্টাইন কোচ মউরিসিও পচেত্তিনোকে দায়িত্বও দেওয়া হয়েছিল বলে ক্লাব সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। তবে এই মুহূর্তে মেসির আগে নেইমার ও এমবাপেকে ধরে রাখার চেষ্টায় ব্যস্ত ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা।

২০২২-এর জুনেই শেষ হয়ে যাবে এই দুই তারকার চুক্তি। তাই এই মৌসুমের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর না করলে সামনের দলবদলে তাদেরকে বিক্রি করা ছাড়া আর উপায় থাকবে না। স্বল্প বয়সেই বৈশ্বিক স্বীকৃতি পাওয়া ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপেকে দলে ভেড়ানোর অপেক্ষায় আছে রিয়াল মাদ্রিদ ও লিভারপুল। আর ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারকে গত কয়েক মৌসুম ধরেই ফেরত নেওয়ার চেষ্টায় আছে বার্সা।

সামনের দলবদলে সেই চেষ্টা সফল হলে আবার ন্যু ক্যাম্পেই পুনর্মিলন হতে পারে মেসি-নেইমারের। তবে এই সম্ভাবনায় সুর মেলাচ্ছেন না পিএসজি সভাপতি নাসের আল খেলাইফি। কিছুদিন আগে সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘ওরা (নেইমার-এমবাপে) থাকতে চায়’ ।

ইএসপিএনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই দুই তারকার সঙ্গে ক্লাবের সাম্প্রতিক কথাবার্তাও এগুচ্ছে ইতিবাচকভাবে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, যদি মৌসুম শেষে নেইমার-এমবাপে নতুন চুক্তি স্বাক্ষর করে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, সেই ক্ষেত্রে মেসিকে আনা কিছুটা কঠিন হয়ে যাবে পিএসজির জন্য। কেন না কেউ বেতন না বাড়ালেও তিনজনের পিছনে বছরে ২০০ মিলিয়ন ইউরোর বেশি খরচ করতে হবে ক্লাবের, যা এক কথায় অসম্ভব। সেক্ষেত্রে মৌসুমের শুরুতে একবার ক্লাব ছাড়ার ডাক দেওয়া এমবাপের রিয়াল মাদ্রিদ বা লিভারপুলে যাওয়ার পথ খুলে যেতে পারে। আর অবস্থা বেশি বেগতিক হলে সামনে নেইমার-এমবাপে দুইজনকেই হারাতে হতে পারে পিএসজির।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন