মালয়েশিয়া আবারও গ্রহন করলো ক’ঠোর পদক্ষেপ

প্রকাশিত: জানু ১২, ২০২১ / ১১:৪৫পূর্বাহ্ণ
মালয়েশিয়া আবারও গ্রহন করলো ক’ঠোর পদক্ষেপ

করোনা এর সংক্রমণ রোধে আবারও কঠিন পদক্ষেপ নিলো এশিয়া মহাদেশের অন্নতম উন্নত দেশ মালয়েশিয়া। কেএল, পুত্রাজায়া, সেলঙ্গর, সাবাহ, জোহর, মালাকা, পুলাউ পেনাং ও লাবুয়ান অঞ্চলে আবারো জারী করা হল ১৪ দিনের মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার বা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন (এমসিও) ।

আজ বিকেল ০৬ টায় টেলিভিশনে জাতির উদ্যেশে দেওয়া এক বিশেষ ভাষণে দেশটির প্রধানমন্ত্রী তান সেরী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

গত মার্চ মাসে সরকার প্রথমে সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৮৮ এবং পাশাপাশি পুলিশ অ্যাক্ট ১৯৬৭ এর অধীনে এমসিও আরোপ করে যা বিভিন্ন ক্রিয়াকলাপকে আচ্ছাদন করে।

এই আদেশের পরে ধর্মীয়, খেলাধুলা, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক ক্রিয়াকলাপের জন্য সমস্ত গণ সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। সুপারমার্কেট, পাবলিক মার্কেট এবং বিভিন্ন জিনিসপত্র এবং সুবিধামত দোকানগুলি যা প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় জিনিসগুলি বিক্রি করে, ব্যতীত সমস্ত উপাসনা ও ব্যবসায়ের জায়গা বন্ধ ছিল।

তবে, বক্ররেখাটি সমতল হওয়ার সাথে সাথে সরকার ধীরে ধীরে শিথিল করে এবং বেশিরভাগ শিল্প খোলার চেষ্টা করে এবং বেশিরভাগ সামাজিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের অনুমতি দেয়।

শর্তসাপেক্ষ এমসিও, লক্ষ্যযুক্ত এমসিও এবং পুনরুদ্ধার এমসিওসহ বিভিন্ন ধরণের এমসিওর অধীনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছিল কিন্তু তৃতীয় দফায় করোনা সংক্রমণে প্রতিদিনই আক্রান্ত’র আক্রান্ত’র সংখ্যা দুই হাজুরের অধিক মানুষ।

সম্প্রতি এ সংখ্যা ৩ হাজার ছাড়ানোর পর আবারও মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার চালুর বিশয়ে সিদ্ধান্ত নিলো দেশটির সরকার। এমসিও চলাকালে গেলো বছরের মার্চের মতোই নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনে করতে হবে জনগণকে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন