ব্ল্যাক বক্সের সন্ধান মিলেছে ইন্দোনেশিয়ায় বি’ধ্ব’স্ত বিমানের

প্রকাশিত: জানু ১০, ২০২১ / ১১:২৮অপরাহ্ণ
ব্ল্যাক বক্সের সন্ধান মিলেছে ইন্দোনেশিয়ায় বি’ধ্ব’স্ত বিমানের

সাগরে বি’ধ্ব’স্ত ইন্দোনেশিয়ার শ্রিয়িজায়া এয়ারলাইন্সের বিমানটির দুটি ব্ল্যাক বক্সের খোঁ’জ পা’ওয়া গেছে। রবিবার দেশটির জাতীয় পরিবহন নিরা’পত্তা কমিটির প্রধান সোয়েরজান্তো জাহজোনো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বি’ধ্ব’স্ত এসজে ১৮২ ফ্লাইটটির দুটি ব্ল্যাক বক্সের অবস্থান শ’না’ক্ত করা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়ার সামরিক বাহিনীর প্রধান হাদি জাহজান্তো বলেছেন, আমরা শীঘ্রই ব্ল্যাক বক্স গুলো পুন’রু’দ্ধা’র করতে পারব।

উদ্ধারকর্মীরা বিমানের ধ্বং’সা’ব”’ষে’র টু’করা জাকার্তা বন্দরে নিয়ে এসেছেন। কর্তৃপক্ষ জানায়, এগুলো জাকার্তা উপকূলের দ্বীপপুঞ্জের সাগরের ৭৫ ফুট গ’ভীরে পাওয়া গেছে। উ’দ্ধা’র হওয়া একটি মো’চ’ড়া’নো ধাতব টু’ক’রা’য় শ্রিয়িজায়া এয়ারলাইন্সের নীল ও লাল রং ছিল। এছাড়া শ’রী’রে’র বিভিন্ন অংশ ও কাপড়ও উ’দ্ধা’র করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। মৃ’ত’দে’হ’গু’লো শ’না’ক্তের জন্য পুলিশ পরিবারগুলোকে দাঁ’তের রেকর্ড ও ডিএনএ নমুনা দিতে অ’নু’রো’ধ করেছে।

৬২ যাত্রী নিয়ে বি’ধ্ব’স্ত বিমানটির সব আরোহীর মৃ’ত্যু হ’য়েছে বলে আ’শ’ঙ্কা করা হচ্ছে। ইন্দোনেশিয়ার কর্তৃপক্ষ বলছে, তারা দু’র্ঘ’ট’না’র স্থান খুঁ’জে পে’য়েছেন। তারা ধারণা করছেন, বোয়িং ৭৩৭ বিমানটি উড্ডয়নের চার মিনিটের মা’থায় সাগরে বি’ধ্ব’স্ত হয়েছে। ফলে বিমানের কোনো যাত্রীর বেঁ’চে থাকার সম্ভা’বনা নে’ই।
স্থানীয় সময় শনিবার দুপুরে রাজধানী জাকার্তা থেকে বিমানটি উড্ডয়ন করেছিল। পরবর্তীকালে সাগরের ওপরে ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় থাকা অবস্থায় বিমানটি নি’খোঁ’জ হয়ে যায়। তারপর থেকেই বিমানটির সঙ্গে কন্ট্রোল রুম থেকে আর যোগাযোগ করা যা’য়নি।

বিমানটিতে ১০ শিশুসহ ৫০ জন যাত্রী এবং ১২ জন ক্রু ছিল। বিমানে থাকা সব আরোহীই ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

সূত্র: রয়টার্স।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন