সাবধান, বাচ্চারা সব খেয়াল করছে

বড়রা শুধু প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো শুনতে মনোযোগী হলেও বাচ্চারা সবকিছুই পর্যবেক্ষণ করে। আর এর মাধ্যমে তারা নতুন কিছু গ্রহণ করে, গবেষকরা জানিয়েছেন এ তথ্য। ডেভেলপমেন্ট সাইকোলজি সাময়িকীতে প্রকাশিত এক নিবন্ধে লেখা হয়েছে, বাচ্চারা তাদের মনোযোগ বিস্তৃত করতে পটু। অন্যদিকে, বড়রা যে তথ্যকে প্রয়োজনীয় মনে করেন, শুধু সে দিকেই মনোযোগ দেন।

ওই নিবন্ধের বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে গবেষকদের বরাত দিয়ে বলা হয়, মনোযোগ বিস্তৃত করায় বাচ্চারা অনেক তথ্য জড়ো করতে পারে, যা তাদের আরো কিছু শিখতে সাহায্য করে। গবেষণা বলছে, এই পার্থক্যটুকু কোনোকিছু শেখার ব্যাপারে বাচ্চাদের বেশ এগিয়ে রাখে।

গবেষণায় অংশ নেয়, ৩৪ জন প্রাপ্তবয়স্ক ও ৩৬ জন চার বছর বয়সী শিশু। গবেষকরা প্রাপ্তবয়স্ক ও বাচ্চাদের প্রথমেই কিছু অপ্রাসঙ্গিক তথ্য দেন, যা পরবর্তী সময়ে একটি কাজ সম্পন্নের জন্য তাঁদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। গবেষকদের একজন যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ভ্লাদিমির স্লাউটস্কি বলেছেন, ‘যেসব তথ্যকে প্রাপ্তবয়স্করা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন না, সেগুলো মনে করা তাঁদের জন্য বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়।’

‘অন্যদিকে, বাচ্চারা নতুন পরিস্থিতিতেও তথ্যগুলো খুব দ্রুত মনে করতে পেরেছে, কারণ তারা কোনোকিছুকেই এড়িয়ে যায়নি। আমি নিশ্চিত, অনেক অভিভাবকই বাচ্চাদের সবকিছু খেয়াল করার এ অভ্যাস সম্পর্কে অবগত, এমনকি আপনি যখন চাইবেন না তখনো,’ যোগ করেন ভ্লাদিমির।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত