পোলাও খাওয়াতে পারেনি গরিব বাবা, তাই…

প্রকাশিত: জানু ৫, ২০২১ / ১০:০১অপরাহ্ণ
পোলাও খাওয়াতে পারেনি গরিব বাবা, তাই…

দিনাজপুর শহরের পশ্চিম রামনগর আপন ঠিকানায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছে। নিহ’ত শিক্ষার্থীর নাম মোসা. শ্রাবন্তি (১২)। সে পশ্চিম রামনগর আপন ঠিকানার ৯৯ নম্বর বাড়ির বাসিন্দা আব্দুল মালেক ও মোসা. সানু দম্পতির মেয়ে।

সে এবার পঞ্চম শ্রেণি থেকে ষষ্ঠ শ্রেণিতে উঠেছিল এবং নতুন বই পেয়েছিল। আজ ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে নিজ শযন ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আতœ হত্যা করে।

এলাকাবাসী জানায়, গত কয়েকদিন ধরে শ্রাবন্তি মায়ের কাছে পোলাও খাওয়ার জন্য আবদার করেছিল। কিন্তু গরিব ভ্যান চালক বাবা পোলাওয়ের চাল আনতে না পারায় মা পোলাও রান্না করে খাওয়াতে পারেনি মেয়েকে।

মঙ্গলবার সে জেদ করে বসলে মা সানু মেয়ের জন্য দোকানে পোলাওয়ের চাল কিনতে যায়। এ সময় শ্রাবন্তি নিজ শয়নঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

কোতোয়ালু থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আসাদুজ্জামান আসাদ আত্মহ’ত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পোলাও খেতে না পারায় মায়ের ওপর অভিমান করে শ্রাবন্তি এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন