আকসছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ

প্রকাশিত: জানু ৪, ২০২১ / ১০:২৮পূর্বাহ্ণ
আকসছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ

জানুয়ারিতে দুটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। জানুয়ারি মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদপ্তর রবিবার (৩ জানুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছে।

এর মধ্যে একটি ‘তীব্র শৈত্যপ্রবাহের’ রূপ নিতে পারে বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ। সাধারণত, বড় এলাকা জুড়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চলে এলে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ ধরা হয়। আর থার্মোমিটারের পারদ ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে নেমে এলে তাকে মাঝারি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ধরা হয়।

পূর্বাভাসে বলা হয়, দুটি শৈত্যপ্রবাহই হবে ১২ জানুয়ারির পর। ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত তাপমাত্রা বেড়ে যাবে। অর্থাৎ শীত ওইভাবে পড়বে না। এখন রাতে যে তাপমাত্রা আছে, তা আরও বাড়বে। কনকনে শীত থাকবে না, কোনো কোনো জায়গায় মানুষ গরম অনুভব করবে। ১২ তারিখের পর থেকে তাপমাত্রা কমা শুরু করবে। দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে যেকোনো সময় তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে।

বাংলাদেশে শীতের দাপট থাকে মূলত জানুয়ারিতে। এ মাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ডিসেম্বরের চেয়েও নেমে যেতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন সামছুদ্দিন আহমেদ। এছাড়া জানুয়ারি মাসে দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানিয়েছেন এই আবহাওয়াবিদ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক জানান, পুরো জানুয়ারিজুড়েই দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি অথবা ঘন কুয়াশা থাকতে পারে। কুয়াশার দাপট কখনো কখনো দুপুর পর্যন্ত থাকতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যান্য এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা থাকতে পারে।

এর আগে গত ডিসেম্বরেও দেশে দুটি শৈত্য প্রবাহ বয়ে গেছে। গত ১৮ থেকে ২৩ ডিসেম্বর ও ২৬ থেকে ৩১ ‍ডিসেম্বর রংপুর ও রাজশাহী বিভাগ এবং যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যায়। চলতি মৌসুমে মধ্য ডিসেম্বর থেকে দেশের উত্তরাঞ্চলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ছিল। ১৯ ডিসেম্বর এ মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল রাজারহাটে, ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন