সৌদিতে আরো ১৯ খাতকে সৌদিকরণ করা হচ্ছে

প্রকাশিত: ডিসে ৩০, ২০২০ / ১২:২২অপরাহ্ণ
সৌদিতে আরো ১৯ খাতকে সৌদিকরণ করা হচ্ছে

উপসাগরীয় দেশ সৌদি আরবে ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২০২১ সালের ১১ জুন থেকে আরো ১৯ খাতকে সৌদিকরণ করার সিদ্ধান্ত সৌদি সরকার। বেকারত্বের হার কমানো এবং ভিশন ২০৩০ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য গত দুইবছর ধরে বিভিন্ন খাতকে সৌদিকরণ করার নির্দেশ দিয়েছে সৌদি সরকার।

এরফলে নির্দিষ্ট সেই খাতগুলোতে সৌদি আরবের নাগরিক ব্যাতীত অন্য কেউ কাজ করতে পারবে না। এবার সেই ধারাবাহিকতায় ২০২১ সালের ১১ জুন থেকে আরো ১৯ টি খাতকে সৌদিকরণ করার ঘোষণা দিলো দেশট। এরফলে আরো ছোট হয়ে এলো সৌদি আরবে বাংলাদেশসহ দেশটিতে অবস্থিত অন্যান্য প্রবাসীদের শ্রমবাজার।

সৌদি আরবের বেকারত্বের হার ১২ দশমিক ৮ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে সরকারি-বেসরকারি খাতে বিদেশি শ্রমিক ছাঁটাইয়ের উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার।

এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে সরকার সৌদি নাগরিকদের মধ্যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নিজ দেশের নাগরিকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উচ্চমূল্যে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগ বন্ধের উদ্দেশ্যেই সৌদি সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে। দেশটির সৌদির শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় এক ঘোষণায় এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, সৌদিআরবের সৌদির শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদি নাগরিকদের মধ্যে বেকারত্ব কমিয়ে আনতে গত দুই বছর ধরেই বিভিন্ন খাতকে সৌদিকরণ করা হচ্ছে।

এর আগে প্রথম ধাপে(১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮) থেকে মোটরযান/ মোটরসাইকেল কিংবা এর যন্ত্রাংশ খুচরা বা পাইকারি বিক্রয় কেন্দ্র, পাইকারি ও খুচরা পোশাক/ কাপড়/ জুতা/ প্রসাধনী বিক্রয় কেন্দ্র, গৃহস্থালি/ অফিসিয়াল ফার্নিচার বিক্রয় কেন্দ্র, গৃহস্থালি তৈজসপত্র, হাঁড়ি-পাতিল জাতীয় দ্রব্য বিক্রয় কেন্দ্র সৌদিকরণ করা হয়।

দ্বিতীয় ধাপে (১০ নভেম্বর, ২০১৮) থেকে পাইকারি ও খুচরা ইলেক্ট্রনিক ও ইলেক্ট্রিক জিনিসপত্র বিক্রয় কেন্দ্র, ঘড়ি বিক্রয় কেন্দ্র, চশমা বিক্রয় কেন্দ্র সৌদিকরণ করা হয়।

তৃতীয় ধাপে ( ৮ জানুয়ারি , ২০১৯) থেকে ফার্মেসি, হেল্থ ও হাসপাতাল সংক্রান্ত যন্ত্রপাতি, নির্মাণসামগ্রী বিক্রয় কেন্দ্র, গাড়ির যন্ত্রাংশ বিক্রয় কেন্দ্র, কার্পেট বিক্রয় কেন্দ্র, চকলেট ও মিষ্টান্ন বিক্রয় কেন্দ্র সৌদিকরণ করা হয়।

এবার সেই ধারাবাহিকতায় ( ১১ জুন, ২০২০) থেকে সৌদিকরণ করা হচ্ছে আরো ১৯ খাতকে। এবারের ধাপে সৌদিকরণ করতে যাওয়া পেশাগুলির মধ্যে রয়েছে অ্যাকাউন্টিং এবং অ্যাকাউন্টিংয়ের পরিচালক অন্তর্ভুক্ত রয়েছে; অ্যাকাউন্ট এবং বাজেটের পরিচালক;

আর্থিক প্রতিবেদন বিভাগের পরিচালক; যাকাত ও কর বিভাগের ব্যবস্থাপক; অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা বিভাগের পরিচালক; সাধারণ নিরীক্ষা বিভাগের ব্যবস্থাপক; অভ্যন্তরীণ অডিট প্রোগ্রামের প্রধান।

এটিতে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, আর্থিক নিয়ামক; অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষক; সিনিয়র আর্থিক নিরীক্ষক; সাধারণ হিসাবরক্ষক; খরচ হিসাবরক্ষক; নিরীক্ষক, সাধারণ অ্যাকাউন্ট প্রযুক্তিবিদ; নিরীক্ষণ প্রযুক্তিবিদ; ব্যয় হিসাব প্রযুক্তিবিদ; আর্থিক নিরীক্ষণ সুপারভাইজার; খরচ কেরানি এবং ফিনান্স ক্লার্ক।

এর আগে, সৌদির শ্রম ও সামাজিক উন্নয়নমন্ত্রী আলী আল ঘাফিস জানিয়েছিলেন , বিদেশি শ্রমিকের জায়গায় সৌদি নাগরিকদের নিয়োগের এই সিদ্ধান্ত মানা না হলে শ্রম আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন