স্ত্রী সন্তানের কাছে ফিরতে চান অসুস্থ মালয়েশিয়া প্রবাসী ফারুক

প্রকাশিত: ডিসে ২৯, ২০২০ / ০৪:৪০অপরাহ্ণ
স্ত্রী সন্তানের কাছে ফিরতে চান অসুস্থ মালয়েশিয়া প্রবাসী ফারুক

চলাচলে অক্ষম ও অসুস্থ মালয়েশিয়া প্রবাসী মো: ফারুক মিয়া (৩৯) ফিরতে চান তার স্ত্রী সন্তানদের কাছে। অসুস্থ ফারুক মিয়া ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানার আকছাইন গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদের ছেলে।

গত ছয় মাস ধরে তার ডান পা অবশ হয়ে যাওয়ায় কাজ-কর্ম ও চলাফেরা করতে পারছেন না তিনি। চিকিৎসার কাজে খরচ হয়ে গেছে আয় করা সব টাকা-পয়সা। এ মুহূর্তে ফারুকের চিকিৎসার ব্যয় ভার বহন করতে পারছেন না দেশে থাকা দরিদ্র ও অসহায়।

কিছু দিন আগে ধার-দেনা করে তার পরিবার ৭০ হাজার টাকা পাঠালেও টাকা ইন্ডিয়ান তামিল ছিনতাইকারীরা পাসপোর্টসহ সব কেড়ে নিয়েছেন। তাকে দেশে ফেরত পাঠানোর যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে প্রয়োজন তিন হাজার মালয়েশিয়ান রিংগিত।

রোববার কুয়ালালামপুর কোতারায়া বাংলাদেশী মার্কেটে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, মো: ফারুক মিয়া দীর্ঘ দিন অসুস্থ হয়ে কোতারায়া বাংলাদেশী মার্কেটের বারান্দায় থাকতেন। তার অসহায়ত্ব দেখে বাংলাদেশী প্রবাসী মো: শাহিন আলম সাময়িকভাবে তাকে জায়গা দেন।

মো: ফারুক নয়া দিগন্তকে জানিয়েছেন, তিনি ২০০৭ সালের কলিং ভিসায় মালয়েশিয়ায় আসেন। তিনি কনস্ট্রাকশন সেক্টরে কাজ করতেন। দেশে তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে।

ফারুক মিয়া এ প্রতিবেদকের পরিচয় জানার পর কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি আপনাদের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার ও প্রবাসীদের কাছে অনুরোধ করছি আমাকে যত দ্রুত সম্ভব দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন। আমার ডান পা ধীরে ধীরে অবশ হয়ে চিকন হয়ে যাচ্ছে। টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছি না। এখানে থাকলে আমি মারা যাব।’

সূত্র : নয়া দিগন্ত

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন