সালমান খানকে এবার ধুয়ে দিলেন দীপিকা

সে অনেক আগের কথা। ২০১৫ সালে এক সাক্ষাৎকারে চোখের বাঁধ ভেঙেছিল এশিয়ার সেরা আবেদনময়ী, বলিউড সুন্দরী দীপিকা পাড়ুকোনের। প্রসঙ্গ ছিল ‘বিষণ্ণতা’। বিষণ্ণতার কথা বলতে গিয়েই কেঁদে ফেলেছিলেন দীপিকা। বলেন, জীবনে বিষণ্ণতা তাঁকে অনেক ভুগিয়েছে। কঠিন সময় পার করেছেন। পরে অবশ্য দুঃসময় কাটিয়েও উঠেছেন।

সেই বিষণ্ণতাকে নিয়ে কেউ যদি টিটকারী বা তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে, তবে কি ছেড়ে কথা বলবেন? ছেড়ে কথা বললেন না দীপিকাও। বলিউড সুপারস্টারকে একহাত নিলেন তিনি। কে তিনি? বলিউডের ভাইজান সালমান খান। সম্প্রতি গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে সালমান বলেন, বিষণ্ণ হওয়া বা মনখারাপ করা বা আবেগী হওয়ার মতো ‘বিলাসিতা’ করার সময় নেই তাঁর। এ মহাতারকা আরো বলেন, নিজের জীবনে কী হচ্ছে না হচ্ছে, কোনো কিছুকেই তোয়াক্কা করেন না।

যা হোক, সালমান তাঁর ব্যক্তিগত মত প্রকাশ করেছেন, নিজের জীবনকে যেভাবে দেখেন, তেমনটাই বলেছেন। কিন্তু যিনি বিষণ্ণতায় ভুগে কঠিন সময় পার করেছেন, তাঁর কাছে সালমানের মত ভালো ঠেকবে? সালমানের বিবৃতিতে তাই সন্তুষ্ট হতে পারলেন না ‘পদ্মাবত’ অভিনেত্রী। ভাইজানের নাম উল্লেখ না করেই একহাত নিলেন সালমানকে। ভোগ সাময়িকীকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দীপিকা পাড়ুকোন বলেন, ‘একজন পুরুষ তারকা সম্প্রতি বলেছেন, বিষণ্ণ হওয়ার মতো বিলাসিতা করার সময় নাকি তাঁর নেই। যেন ইচ্ছে করেই কেউ বিষণ্ণতায় ভোগে!’

নিজের বিষণ্ণতার সেই দিনগুলোর কথা স্মরণ করে দীপিকা আরো বলেন, বিষণ্ণতা যে কী ভয়াবহ, তা নিজের লড়াইয়ের অভিজ্ঞতাই প্রমাণ করে। ‘প্রতিটি মুহূর্তই ছিল লড়াইয়ের। সব সময় ক্লান্ত থাকতাম,’ বলেন দীপিকা। দীপিকা পাড়ুকোনের কথাগুলো কি সালমান খান শুনছেন? তিনি কি তাঁর মত বদলাবেন? দীপিকাভক্তরা তো ভাইজানের বক্তব্য শোনার অপেক্ষায় রয়েছেন। সূত্র : ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত