ধর্ম প্রতিমন্ত্রী পাওয়ায় যা ভাবছে জামালপুরবাসী

প্রকাশিত: নভে ২৪, ২০২০ / ১১:২২অপরাহ্ণ
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী পাওয়ায় যা ভাবছে জামালপুরবাসী

জামালপুর-২ (ইসলামপুর) আসনের সংসদ সদস্য সজ্জন ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে খ্যাত ফরিদুল হক খান দুলালকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করায় আনন্দে ভাসছে জামালপুর।

আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীসহ দলমত নির্বিশেষে জেলার সাধারণ মানুষ ফরিদুল হক খান দুলালকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এ আসনে স্বাধীনতার পর বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে একবার করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। বাকী সবসময়ই জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা।

প্রয়াত ভূমি প্রতিমন্ত্রী রাশেদ মোশারফ এ আসনের পাঁচবারের এমপি ছিলেন। ফরিদুল হক খান দুলাল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে জামালপুর-২ (ইসলামপুর) আসন থেকে নবম, দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচিত সদস্য।

তিনি দশম জাতীয় সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন। সর্বশেষ গত কয়েকদিন আগে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পুনর্গঠিত বোর্ড অব গভর্নসের গভর্নর হিসেবে আগামী ৩ বছরের জন্য মনোনীত হয়েছেন তিনি।

ফরিদুল হক খান ১৯৫৬ সালে জানুয়ারি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার উত্তর সিরাজাবাদ গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

তার পিতা মো. হবিবর রহমান খান ইসলামপুরের পলবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন এবং মাতা মোসাম্মৎ ফাতেমা খানম গৃহীনি। সাত ভাই দুই বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন বড়।

ফরিদুল হক রাজনীতি জীবনে কারাবরণ করেন। তিনি ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এবং বর্তমানে সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

এমপি নির্বাচিত হয়ে ইসলামপুরকে বদলে দিয়েছেন ফরিদুল হক। তার উদ্যোগে যমুনা নদীকে শাসন করে তিনি পশ্চিম ইসলামপুরবাসীর সারাজীবনের কান্না থামিয়েছেন। গত ১২ বছরে ‘শেখ হাসিনা ইন্সটিটিউট অব হেলথটেকনোলজি’ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৫০ শয্যায় উন্নিত করণ, ১২টি ইউনিয়নে ৪৭টি কমিউনিটি ক্লিনিক, ৩টি পরিবার কল্যান কেন্দ্র্র, চরাঞ্চলের আইনশৃংঙ্খলা রক্ষায় দু’টি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র স্থাপন, অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জন্য ঘরবাড়ি ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ, ইসলামপুর পৌরসভাকে ২য় শ্রেণীতে উন্নতিকরণ করেন তিনি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি বলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয় পরিচালনার জন্য একজন যোগ্য সংসদ সদস্যকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জামালপুরে একজন প্রতিমন্ত্রী থাকার পরও নতুন করে আজকে দ্বিতীয় আরেকজনকে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জামালপুরবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে বিশ্বাস ও আস্থা নিয়ে তাকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন, আমি বিশ্বাস করি তিনি তার যোগ্যতা, মেধা, দক্ষতা ও সততা দিয়ে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে পালন করবেন।

আমরা জামালপুরের সব সংসদ সদস্য কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে টিম ওয়ার্কের ভিত্তিতে আমাদের জামালপুরে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যহত রেখেছি ফরিদুল হক খান দুলাল প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় সেটা আরও পরবর্তীতে বেগবান হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

আমাদের এ টিমের সদস্য ফরিদুল হক খান দুলাল প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আমাদের টিমটি আরও শক্তিশালী ও গতিশীল হবে এবং জামালপুরের সার্বিক উন্নয়নে আমরা যৌথভাবে কাজ করবো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে ফরিদুল হক খান দুলালের সহধর্মিনী আফরোজা হক বলেন, তার স্বামী রাজনীতি করতে গিয়ে নানা চড়াই উৎরাই পার করেছেন। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মি’থ্যা মা’ম’লা’য় কা’র’ভো’গ করেছেন। ওয়ান ইলেভেনের সময়ও তার উপর নানা ষ’ড়’য’ন্ত্র চলে। কোন ষ’ড়’য’ন্ত্র’ই তাকে দ’মি’য়ে রাখতে পারেননি।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আলহাজ ফরিদুল হক খান দুলালকে অভিনন্দন জানিয়েছেন জামালপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ ইঞ্জিনিয়ার মোজাফ্ফর হোসেন, জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হাফিজ রায়হান সাদা ও সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমানসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন