সৌদিতে দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী অভিযা’নে রাতভ’র পে’টা’নো হতো অভিযু’ক্ত যুবরাজদের

প্রকাশিত: নভে ২০, ২০২০ / ১২:১৯পূর্বাহ্ণ
সৌদিতে দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী অভিযা’নে রাতভ’র পে’টা’নো হতো অভিযু’ক্ত যুবরাজদের

দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী অ’ভি’যা’নের অংশ হিসেবে সুইস ব্যাংকে র’ক্ষি’ত অর্থ ফেরত দিতে চাপ সৃষ্টিতে ২০১৭ সালে কয়েকজন সৌদি প্রিন্সকে রা’ত’ভর বে’ধ’ড়’ক পে’টা’নো হয়।

সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান দেশটির শীর্ষ অভিজাত ব্যবসায়ী ও কয়েকজন প্রিন্সের বি’রু’দ্ধে দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী শক্ত অ’ভি’যা’ন পরিচালনা করেন।

ওই অ’ভি’যা’নে রিৎজ কার্লটন হোটলকে ব্যবহার করা হয়।যেখানে অ’ভি’যু’ক্ত’দের দিনের পর দিন ব’ন্দী করে রাখা হয়। আ’ট’ক’কৃ’ত’দে’র মধ্যে ছিলেন ধনাঢ্য প্রিন্স আল ওয়ালিদ বিন তালাল।যাকে ৮০ দিন আ’ট’কে রাখা হয়।

আরেকজন ছিলেন সৌদি ন্যশনাল গার্ডের প্রধান প্রিন্স মেতিয়েব বিন আব্দুল্লাহ।পরবর্তীতে ১ বিলিয়ন ডলার ফেরত দেওয়ার শর্তে তাকে ছে’ড়ে দেয়া হয়।

সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানকে দেয়া সাক্ষাতকারে ওই সময়ে আ’ট’ক হওয়া একজন জানান, কিভাবে সবার চো’খ বেঁ’ধে রাখা হয়েছিল। তিনি জানান, আ’ট’ক সৌদি যুবরাজদের দেয়ালের সাথে বেঁ’ধে পে’টা’নো হতো।

কাউকে কাউকে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ফাঁ’স করে দেওয়ারও হু’ম’কি দেয়া হয়।
সৌদি কর্তৃপক্ষ বলছে, দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী ওই অ’ভি’যা’নে ১০৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার উ’দ্ধা’র করেছে সরকার। তবে ভিন্ন একটি সূত্র জানায়, উ’দ্ধা’র’কৃ’ত অর্থের পরিমাণ ২৮ বিলিয়ন ডলারেরও কম।

আ’ট’ক’কৃ’ত কয়েকজন জানান, কি কারণে তাদের আ’ট’ক করা হয়েছিল, তাও তারা জানেন না। এটি ছিলো স্রেফ ব্লা’ক’মে’ই’ল। তবে চা’প দেয়া সত্ত্বেও কয়েকজন ব’ন্দী কোনো ধরনের স্বাক্ষর করতে রা’জি হননি।

সৌদি আরবের অ্যাটর্নি জেনারেল পরবর্তীতে ঘোষণা করেন, সরকার আ’ট’ক’কৃ’ত’দে’র সম্পত্তি, অর্থ ও বাণিজ্যিক সত্ত্ব জ’ব্দ করে।
দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী ওই অ’ভি’যা’নে ৩৮১ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আর আ’ট’ক করা হয় ব্যবসায়ী ও প্রিন্সসহ ১৭ জনকে।
সূত্র জানায়, দু’র্নী’তি সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদ ও পে’টা’নো’র আগে আ’ট’ক’কৃ’তে’র সাথে নরম ব্যবহার করা হতো। পরে রিৎজ কার্লটন হোটেলের দেয়ালের সাথে বেঁ’ধে ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে পে’টা’নো হতো ব’ন্দী’দে’র।

ঘটনার এক মাস আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরব সফরে এসে হোটেলটিতে অবস্থান করেন।
দু’র্নী’তি’বি’রো’ধী অভিযান পরিচালনার পাশাপাশি সৌদি ক্রাউন প্রিন্স দেশটিতে ব্যাপক সংস্কার সাধন করেন।যার মধ্যে ছিল প্রথমবারের মতো নারীদের গাড়ি চালানোয় অনুমতি। তবে তুরস্কে সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হ’ত্যা’র অ’ভি’যো’গে তার ইমেজে অনেকখানি ভা’টা পড়ে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন