সিনেমা বানাতে ছাগল চুরি

প্রকাশিত: নভে ১৫, ২০২০ / ১০:০৪অপরাহ্ণ
সিনেমা বানাতে ছাগল চুরি

বাবাকে নিয়ে একটা সিনেমা বানাতে চেয়েছিল দুই ভাই। শুরুও করেছিল। কিন্তু টাকায় টান পড়ায় মাঝপথেই বন্ধ হয়ে যায় সিনেমা তৈরি।

আর তাই নিজেদের স্বপ্ন পূরণের টাকা জোগাড় করতে শুরু করেন ছাগল চুরি। একদিন-দু’দিন নয়, একটানা তিন বছর। কিন্তু বিধিবাম! ছাগল চুরি করে গিয়েই পুলিশের হাতে আটক হয়েছে তারা।

শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই ঘটেছে ভারতের তামিলনাড়ুতে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

তামিলনাড়ুর নিউ ওয়াশারমেনপেটের বাসিন্দা ভি নিরাঞ্জন কুমার (৩০) এবং তার ভাই লেনিন কুমার (৩০) নিজের বাবাকে নিয়ে একটি সিনেমা তৈরি করছিল। সিনেমাটির নাম ‘নে থানা রাজা’।

এতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছিল এই দুই ভাই। কিন্তু মাঝে হঠাৎ করেই অর্থের অভাবে সিনেমা তৈরির কাজ বন্ধ হয়ে যায়। তখনই ছাগল চুরির চিন্তা মাথায় আসে দু’জনের। এরপর থেকে ছাগলসহ গবাদিপশু চুরি এবং বিক্রি করে আসছিল তারা।

পার্শ্ববর্তী চেঙ্গেলপেট, মাধাভরম, মিনজুর এবং পোন্নেরি এলাকায় গাড়ি নিয়ে ঘুরে বেড়াতেন তারা। এরপর রাস্তায় কোনো গবাদিপশু বিশেষ করে ছাগল, ভেড়া চরে বেড়াতে দেখলেই গাড়ি থামিয়ে সেটিকে চুরি করত এ দুই ভাই। তারপর নিয়ে বিক্রি করত।

দিনে ৮-১০টি ছাগল চুরি করে প্রতিটি ৮০০ টাকায় বিক্রি করত দু’জনে। চুরির সেই টাকা সিনেমা তৈরির জন্য ব্যবহার করত। কিন্তু সম্প্রতি দুটি ছাগল চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ে তারা।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের দোষ স্বীকারও করে নিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, কোনো পশুপালকের ছাগল-ভেড়া চুরি করলেও একটি বা দুটির বেশি করত না, যাতে তাদের সন্দেহ না হয়। সম্প্রতি মাধাভরমের এক ব্যক্তির থেকে একটি ছাগল চুরি করেন তারা।

কিন্তু ওই ব্যক্তির ছাগলই ছিল ছয়টি। এতেই তার সন্দেহ হয়। এরপরই থানায় অভিযোগ করেন তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ আরও ঘটনার কথা জানতে পারে।

এরপরই রাস্তা থেকে দুটি ছাগল চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে তারা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন