মালয়েশিয়ায় প্রবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া নিয়ে সতর্ক করল দূতাবাস

প্রকাশিত: নভে ১৫, ২০২০ / ১২:২৪অপরাহ্ণ
মালয়েশিয়ায় প্রবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া নিয়ে সতর্ক করল দূতাবাস

এশিয়ার মধ্যে অন্যতম উন্নত একটি দেশ হল মালয়েশিয়া। আর সেই কারনে সেদেশে অসংখ্য মানুষ ছুটে যায় জীবিকার আশায়। আবার অনেকে বৈ;ধ পথ না পেয়ে ছোটেন অ;বৈ;ধ পথে।

তবে মালয়েশিয়ায় রি-কোলাবেরশন নামে অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। কৃষি, বৃক্ষরোপণ, নির্মাণ ও উৎপাদন এ চারটি সেক্টরে বৈধকরণ প্রক্রিয়া শুরু হবে চলতি মাসের ১৬ নভেম্বর।

চলবে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত। এ কর্মসূচিতে থাকবে না কোনো এজেন্ট বা ভেন্ডর। এ কর্মসূচির আওতায় সোর্স কান্ট্রি অন্তর্ভুক্ত ১৫টি দেশের অবৈধ অভিবাসীরা বৈধ হতে পারবেন বলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ জানিয়েছে। শুধু নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি অবৈধ কর্মীদের নামসহ সরাসরি ইমিগ্রেশনে ইমেইলের মাধ্যমে আবেদন করবে।

এদিকে অতিসম্প্রতি বৈধকরণ প্রক্রিয়া ঘোষণার পরই মরিয়া হয়ে উঠেছে দালাল চক্র। দালাল চক্রের প্ররোচনায় পড়ে টাকা-পাসপোর্ট লেনদেন না করতে সতর্ক করেছে মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশন।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) মিশনের ফেসবুক পেইজে এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মালয়েশিয়া সরকার কোনো এজেন্ট বা ভেন্ডর নিয়োগ করেনি, কোম্পানি ছাড়া অন্য কারও মাধ্যমে বা নিজে নিজে ইমিগ্রেশনে গিয়ে বৈধ হওয়া যাবে না।

নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি নিজেই সরাসরি করবে। কোনো ধরনের আর্থিক লেনদেন না করার জন্য সতর্ক করে দিয়েছে হাইকমিশন। এর আগে ২০১৬ সালে ‘রিহায়ারিং প্রোগ্রাম’ নামে একটি প্রকল্প হাতে নেয় মালয়েশিয়া সরকার।

প্রকল্পটি শেষ হয় ২০১৮ সালে। সে সময়ও হাইকমিশন থেকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছিল। সচেতনতামূলক লিফলেটও বিতরণ করা হয়েছিল। এরপরও দালাল ও ভেন্ডরের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন বাংলাদেশিরা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন