সকালে নাশতা না খেলে যেসব রোগের ঝুঁকি রয়েছে

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর আনমনা থাকেন অনেকে। আবার অনেক সময় দেখা যায় সকালের খাবার এড়িয়ে চলেন। এটি মোটেই ঠিক নয় । সকালে নাশতা না খেলে শারীরিক ও মানসিকভাবে স্বাস্থ্যের ওপর নানা রকম বিরূপ প্রভাব পড়ে। ফলে আপনার মনের অজান্তের শরীরে বিভিন্ন ধরনের রোগ বাসা বাঁধে।

যারা সকালের নাশতা এড়িয়ে চলেন তাদের জন্য বলছি। কখনোই সকালের নাশতা এড়িয়ে চলা যাবে না। সকালে ঘুম থেকে উঠে ব্রাশ করার ১ ঘণ্টার মধ্যে নাশতার কাজটি সেরে নিন। এতে শরীর ভালো থাকবে।

আসুন জেনে নেই সকালে নাশতা না খেলে কী ধরনের রোগের ঝুঁকি রয়েছে আপনার।

ডায়াবেটিসের শঙ্কা বাড়ে
ডায়াবেটিস একটি বহুল পরিচিত রোগ। প্রতিনিয়ত এই রোগের বিস্তার বাড়ছে। আপনি জানেন কি সকালে নাশতা না খেলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে। কারণ সকালের খাবার এড়িয়ে যাওয়ার সঙ্গে ইম্পেয়ারড গ্লুকোজ টলারেন্স বা আইজিটির সংযোগ রয়েছে, যা প্রি-ডায়াবেটিস এবং ডায়াবেটিস বিকাশের শঙ্কা বৃদ্ধি করে।

হৃদরোগের ঝুঁকি
সুস্থ জীবনধারার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে সকালের ভালো নাশতা। দীর্ঘ সময় উপোস থাকলে শরীরের ওপর চাপ পড়ে এবং শরীরের পক্ষে কাজ করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায় ও শরীর দুর্বল হয়। যেসব ব্যক্তি সকালের নাশতা এড়িয়ে চলেন তাদের হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি ২৭ শতাংশ বেশি।

শক্তি হ্রাস পাবে
সকালের নাশতা না খেলে আপনার শক্তি হ্রাস পাবে। আপনি অধিক পরিশ্রম করতে পারবেন না, ফলে আপনার ওজন বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা থাকে। আপনি মনে রাখবেন শরীরে শক্তি পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে সকালে নাশতা করতে হবে।

রেগে যেতে পারেন
ক্ষুধা পেটে সব সময় মানুষের মেজাজ খিটখিটে থাকে। এছাড়া ক্ষুধা পেটে আপনি কোনো কাজও করতে পারবেন না। তাই সকালের সময়মতো নাশতা খাওয়া জরুরি। এছাড়া ক্ষুধার্ত থাকলে আপনি খুব সহজে রেগে যেতে পারেন। এই রাগ আপনার কাজে ব্যাঘাত ঘটাবে তাই ক্ষুধা পেটে থাকা যাবে না।

বিপাক ধীরে হতে পারে

সকালের নাশতা না খেলে আপনার শরীর ফুয়েল সংরক্ষণ করতে কাজ করা থামিয়ে দেবে। ক্যালরি সীমাবদ্ধতার কারণে আপনার শরীর নিজের মূল মেটাবলিক রেট ধীর করে ফেলে। দীর্ঘক্ষণ উপোস শরীরের ক্যালরি পোড়ানোর ইচ্ছাকে হ্রাস করতে পারে এবং অ্যাডিপোজ টিস্যুকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত