আবার রিমান্ডে ইরফান সেলিম ও জাহিদ

প্রকাশিত: নভে ৮, ২০২০ / ০৬:৪০অপরাহ্ণ
আবার রিমান্ডে ইরফান সেলিম ও জাহিদ

ইব্রাহিম নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মা’র’ধর ও হ’ত্যা’চেষ্টার মা’মলায় বরখাস্ত হওয়া কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইরফান সেলিমকে মা’দ’কদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও অস্ত্র আইনের পৃথক দুটি মা’ম’লায় পাঁচ দিন করে রি’মা’ন্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ রোববার পৃথক দুটি আদালত ইরফান সেলিমের এই রি’মা’ন্ড মঞ্জুর করেন। একইসঙ্গে ইরফানের সহযোগী মো. জাহিদকেও অ’স্ত্র ও মাদক আইনের দুটি মা’ম’লায় পাঁচ দিনের রি’মা’ন্ডে পাঠানো হয়।

এর মধ্যে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কায়সারুল ইসলাম অ’স্ত্র মা’ম’লায় ইরফান ও তাঁর সহযোগী জাহিদকে তিন দিন করে এবং আরেক মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদার মাদক মা’ম’লায় দুজনকে দুই দিনের রি’মা’ন্ডের আদেশ দেন।

ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মো. শওকত আকবর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো জানান,

গত ২৯ অক্টোবর মা’ম’লার তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন দুই আ’সা’মিকে চার মা’ম’লায় গ্রে’প্তা’র দেখানোসহ মোট ২৮ দিনের রি’মা’ন্ড আবেদন করেন।

প্রত্যেক আ’সা’মিকে প্রতিটি মামলায় সাত দিন করে রি’মা’ন্ডে নেওয়ার আবেদন করা হয়। আজ শুনানি শেষে প্রত্যেককে পাঁচ দিন করে রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করেন।

গত ২৫ অক্টোবর রাতে নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খানকে মারধর ও হ’ত্যা’র হু’ম’কি দেওয়া হয়। পরের দিন ২৬ অক্টোবর সকালে জাতীয় সংসদের সদস্য হাজি সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম, এ বি সিদ্দিক দিপু, মো. জাহিদ ও মিজানুর রহমানের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো দু-তিনজনকে আ’সা’মি করে ধানমণ্ডি থানায় হ’ত্যা’চেষ্টার মা’ম’লা করেন ওয়াসিফ আহমদ খান।

ওই দিন দুপুর থেকে র‍্যাব সদস্যরা রাজধানীর চকবাজারের ২৬ দেবীদাস ঘাট লেনে ‘চাঁন সরদার দাদা বাড়ী’-তে অ’ভি’যান চালান। অ’ভি’যানে নেতৃত্ব দেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

অ’ভি’যান শেষে অবৈধ ওয়াকিটকি ও মা’দ’ক রাখার দায়ে ইরফান সেলিম ও তাঁর দেহরক্ষী মো. জাহিদকে এক বছর করে কা’রা’দণ্ডাদেশ দেন র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এরপর রাতে দুজনকে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কা’রা’গারে পাঠানো হয়।

অপরদিকে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের মামলায় গত ২৬ অক্টোবর গাড়িচালক মিজানুর রহমানকে এক দিনের রি’মা’ন্ডে নেয় পুলিশ। একই মা’ম’লায় গত ২৭ অক্টোবর ইরফানের সহযোগী আ’সা’মি দিপুকে আদালতে হাজির করে সাত দিন রি’মা’ন্ডে নেওয়ার আবেদন করেন মা’ম’লার তদন্ত কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক তিন দিনের রি’মা’ন্ড মঞ্জুর করেন।

পরে ইরফান ও জাহিদকে তিন দিনের রি’মা’ন্ডে নেয় পুলিশ। সে রি’মা’ন্ড শেষ হলে পুনরায় দুই দিনের রি’মা’ন্ডে পাঠানো হয়। আজ নিয়ে ইরফান সেলিম ও তাঁর সহযোগী জাহিদ তিন দফায় রিমান্ডে গেলেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন