মিশিগানের ভোট গণনা পদ্ধতি নিয়ে তদন্তের ঘোষণা

প্রকাশিত: নভে ৭, ২০২০ / ১০:৩৭পূর্বাহ্ণ
মিশিগানের ভোট গণনা পদ্ধতি নিয়ে তদন্তের ঘোষণা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ভোট গণনা পদ্ধতি নিয়ে তদন্তের ঘোষণা দিয়েছেন অঙ্গরাজ্যটির হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার। অঙ্গরাজ্যটির রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত হাউসের স্পিকার লি চ্যাটফিল্ড বলেছেন, আইনসভার পর্যবেক্ষক কমিটি যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শনিবার এই তদন্ত শুরুর বিষয়ে বৈঠক করবে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে এ কথা জানানো হয়েছে।

মিশিগান অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ ছাড়া মৃত ব্যক্তির ভোট দেওয়াসহ নানা অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে লি চ্যাটফিল্ড অঙ্গরাজ্যের প্রতিনিধি পরিষদের পর্যবেক্ষক কমিটি নির্বাচন ও এর ভোট গণনা পদ্ধতি নিয়ে বৈঠকে বসবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এই নির্বাচন ও ভবিষ্যতের নির্বাচনগুলো যেন তর্কের ঊর্ধ্বে থাকে, সে জন্যই এ তদন্ত করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

টুইটে লি চ্যাটফিল্ড লেখেন, ‘ফল পরিবর্তন লক্ষ্য নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ঐক্য ও নিশ্চয়তা দরকার। এটা প্রয়োজন। নির্বাচনে যিনিই বেশি ভোট পাবেন, তিনিই মিশিগান জয় করবেন। এখানেই গল্প শেষ। আমরা এগিয়ে যাব।’

এদিকে, নির্বাচনে এখনো জয়-পরাজয়ের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না এলেও গন্তব্যের খুব কাছেই পৌঁছে গেছেন ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন। ফল ঘোষণার বাকি থাকা পাঁচ অঙ্গরাজ্যের তিনটিতেই এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। আর জর্জিয়ায় ব্যবধান ১ শতাংশের কম হওয়ায় আইন অনুযায়ী পুনরায় ভোট গণনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

৫০টি অঙ্গরাজ্য ও ডিস্ট্রিক্ট অব কলাম্বিয়ার মধ্যে নেভাদা, পেনসিলভানিয়া, নর্থ ক্যারোলাইনা, জর্জিয়া ও আলাস্কার ভোটের ফলাফল এখনো মেলেনি। এগুলোতে এখনো ভোট গণনা চলছে। এর মধ্যে পেনসিলভানিয়ায় ২০টি, নর্থ ক্যারোলাইনায় ১৫টি, জর্জিয়ায় ১৬টি, আলাস্কায় তিনটি ও নেভাদায় ছয়টি মহামূল্যবান ইলেকটোরাল ভোট আছে। এসব অঙ্গরাজ্য থেকে ছয়টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেলেই হোয়াইট হাউসে যেতে পারবেন বাইডেন।

অন্যদিকে, আবারও প্রেসিডেন্ট হতে হলে ট্রাম্পকে নেভাদাসহ পাঁচটি অঙ্গরাজ্যের সব (৬০টি) ইলেকটোরাল ভোটই পেতে হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন