সমান ভোট পেলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবেন যেভাবে

প্রকাশিত: নভে ৬, ২০২০ / ০১:৪৯অপরাহ্ণ
সমান ভোট পেলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবেন যেভাবে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জিততে হলে ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোট পেতে হবে। কিন্তু হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন- কেউ-ই যদি সংখ্যাগরিষ্ঠতা বা ২৭০টি না পান এবং ৫৩৮ ইলেক্টোরাল ভোটের মধ্যে ২৬৯-২৬৯ ভোট সমান হয় তাহলে কী হবে?

নিউইয়র্ক টাইমস বলছে এক্ষেত্রে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ তথা প্রতিনিধি পরিষদের হাতে চলে যাবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দায়িত্ব।

নিয়ম অনুযায়ী, কেউ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলে প্রতিনিধি পরিষদ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে। আর ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে সিনেট। প্রতিনিধি পরিষদ প্রতিটি রাজ্যের একটি করে ডেলিগেশন থেকে ভোট নেবে।

সে ক্ষেত্রে ৫০টি রাজ্যের মধ্যে যিনি ২৬টি ভোট পেয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন তিনিই হবেন প্রেসিডেন্ট। আর ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ক্ষেত্রে ১০০ সদস্যের সিনেটে যিনি ৫১টি ভোট পাবেন তিনি এই পদে জয়ী বিবেচিত হবেন।

যদি ভোট এমন অনিষ্পন্ন থেকে যায় তবে ট্রাম্প সুবিধাভোগী হতে পারেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে এমন অনিষ্পন্ন ফলাফল হওয়ার সম্ভাবনা একেবারে নেই বলেই মনে করছেন তারা।

এমনটি হলে এবারের ভোটে সবচেয়ে বাজে পরিস্থিতি তৈরি হবে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। কারণ অন্য যে কোনো নির্বাচনের চেয়ে এবারের নির্বাচনে হুমকিধমকি, আদালতে যাওয়া ও নিজেদের জয়ের ব্যাপারে একগুঁয়েমি মনোভাব বেশি দেখা যাচ্ছে।

এছাড়া তৃতীয় কোনো দলের প্রার্থীও যদি বেশি ভোট পাওয়ার মাধ্যমে প্রধান দুই দলের প্রার্থীর সংখ্যাগরিষ্ঠাতে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেন, তখনও একই পদ্ধতিতে প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেট প্রেসিডেন্ট এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের তথ্য অনুযায়ী, ৫৩৮টি ইলেকটোরাল ভোটের মধ্যে জো বাইডেন এ পর্যন্ত ২৪৮টি ইলেকটোরাল ভোট পেয়েছেন। ২৭০টি নিশ্চিত হলেই প্রেসিডেন্ট হন যেকোনো প্রার্থী। অপরদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি ইলেকটোরাল ভোট।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে বাইডেনের আরও ২২টি ইলেকটোরাল কলেজ প্রয়োজন। মিশিগান ও নেভাদায় এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছেন বাইডেন। এই দুই রাজ্যে ইলেকটোরাল কলেজের সংখ্যাও ২২। তবে নেভাদায় এখনও এক তৃতীয়াংশ ভোট গণনা করা হয়নি। অপরদিকে মিশিগানে ভোট গণনা প্রায় শেষ।

উইসকনসিন অঙ্গরাজ্য এবারের নির্বাচনের প্রথম থেকেই ব্যাটলগ্রাউন্ড হিসেবে পরিচিত। প্রথম থেকেই এই রাজ্যে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাওয়া যাচ্ছিল। তবে বাইডেন জয় পেলেও রিপাবলিকান ট্রাম্পের সঙ্গে তার ব্যবধান সামান্যই।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন