মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীকে অ’প’হ’র’ণ করে মুক্তিপ’ণ দা’বি, গ্রে’ফ’তার ৩

প্রকাশিত: নভে ৫, ২০২০ / ১২:০৯পূর্বাহ্ণ
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীকে অ’প’হ’র’ণ করে মুক্তিপ’ণ দা’বি, গ্রে’ফ’তার ৩

মালয়েশিয়ায় আলী আরশাদ নামের এক বাংলাদেশী শ্রমিককে অ’প’হ’র’ণ করে মু’ক্তিপণ দা’বি করায় তিন বাংলাদেশী অ’প’হ’র’ণকারীকে গ্রে’ফ’তার করেছে দেশটির পুলিশ। ইমাম হাজারী নামে এক প্রবাসীর দায়ের করা মা’ম’লার সূত্র ধরে বুধবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত আ’সা’মি’দের মধ্যে তিনজনকে গ্রে’ফ’তা’র করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

মালয়েশিয়ার পুলিশ জানায়, গ্রে’ফ’তা’র’কৃ’ত আ’সা’মি’রা হলেন ফারুক, নুরুন্নবী ও বিপ্লব কুমার। গ্রে’ফ’তা’র’কৃ’ত’দের মধ্যে ফারুক ও নুরুন্নবীর বাড়ি কুমিল্লায় এবং বিপ্লব কুমারের বাড়ি যশোরে। মা’ম’লা’র আরো কয়েকজন আ’সা’মি এখনো প’লা’তক রয়েছেন। প’লা’ত’ক’দের মধ্যে একজনের নাম মতিউর তার বাড়ি গাজীপুরে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত ২ নভেম্বর আনুমানিক সময় রাত ৮টায় চারজন লোক একটি সাদা (ইসুজু ডি ম্যাক্স) গাড়িতে করে অ্যাপার্টমেন্ট পাংসাপুরি প্রেমাই সেকশন-৩, জালান ট্রপিকানা সেলেটান পিজেইউ’র সামনে এসে দাঁড়ায়। এ সময় গাড়িতে থাকা চারজন বাংলাদেশী গাড়ি থেকে নেমে আসেন। পরে সেখান থেকে আলী আরশাদ নামের ওই ব্যক্তিকে প্রথমে কাজের কথা বলে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করেন। লোকটি গাড়িতে উঠতে না চাইলে তাকে জো’র করে গাড়িতে তুলে নিয়ে যান।

ঘটনার বিবরণে আরো জানা যায়, পরে পাশের একটি নার্সারির ভিতরে নিয়ে তাকে আ’ট’কে রাখেন তারা। আলী আরশাদের হাত দ’ড়ি দিয়ে বেঁ’ধে ফেলেন অ’প’হ’র’ণ’কা’রীরা। পরে লো’হার শি’ক’ল দিয়ে পা বেঁ’ধে তাকে পা’শ’বিক নি’র্যা’তন করা হয়। নি’র্যা’ত’নের একপর্যায়ে আরশাদের মোবাইল ছি’নি’য়ে নিয়ে তার ফোন থেকে ভিডিওকল দেন তার পরিবারের কাছে। এসময় তার নি’র্যা’ত’নে’র দৃশ্য দেখিয়ে মু’ক্তি’প’ণ বাবদ ৩০ হাজার রিঙ্গিত দা’বি করা হয়, যা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ছয় লাখ টাকা। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে মু’ক্তি’প’ণে’র টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় নি’র্যা’ত’ন আরো বাড়িয়ে দেয়া হয়, এবং তাকে মে’রে ফেলার হু’ম’কি দেয়া হয়। একপর্যায়ে সন্তানের নি’র্যা’ত’নে’র এমন দৃশ্য দেখে অসহায় হয়ে তাদের কাছে দু’দিনের সময় চান আরশাদের পরিবার।

এদিকে রাতেই আলী আরশাদের অ’প’হ’র’ণে’র খবর পান ব্যবসায়ী ইমাম হাজারী। কিছুক্ষণ পর তার হোয়াটসঅ্যাপে অ’প’হ’র’ণ হওয়া আলী আরশাদের ছবি পাঠিয়ে একজন সহযোগিতা কামনা করেন।

পরদিন সকালে ওই ছবিসহ দামানছাড়া থানায় মা’ম’লা দায়ের করেন তিনি। পরে বিশ্বস্ত সূত্র ধরে পুলিশকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন ওই ব্যবসায়ী। মালয়েশিয়া পুলিশের সহযোগিতায় অ’প’হৃ’ত আলী আরশাদকে করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মলয়েশিয়ার দামানছাড়া থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর অ্যাডাম বলেন, বাকি আ’সা’মি’দে’র গ্রে’ফ’তা’রে’র চেষ্টা চলছে। খুব দ্রুতই তাদেরকে গ্রে’ফ’তা’র করা হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন