যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্পবিরোধী বি’ক্ষোভ, হোয়াইট হাউসের সামনে সংঘ’র্ষ

প্রকাশিত: নভে ৪, ২০২০ / ০৪:৩৬অপরাহ্ণ
যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্পবিরোধী বি’ক্ষোভ, হোয়াইট হাউসের সামনে সংঘ’র্ষ

নির্বাচনের রাতে যখন যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ভোট গণনা চলছে, তখন হাজার হাজার বিক্ষোভকারী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন ডিসিতে বিক্ষোভ করতে শুরু করেছেন।

এমনকি দেশটির প্রেসিডেন্টের বাসভবন হোয়াইট হাউসের সামনে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে বিক্ষো’ভকারীদের সংঘ’র্ষও হয়েছে। পু’লিশ বিক্ষোভস্থল থেকে বেশ কয়েকজনকে গ্রে’ফতার করেছে বলেও খবর দিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম।

তাদের মিছিলের কারণে শহরের অনেক এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বিক্ষোভকারীরা শ্লোগান দিচ্ছেন, আমরা যদি বিচার না পাই, তাহলে তোমরা শান্তিও পাবে না।

বেশিরভাগ স্থানে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চললেও হোয়াইট হাউসের বাইরে সংঘর্ষের খবরও পাওয়া যাচ্ছে। অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

লস অ্যাঞ্জেলস, ক্যালিফোর্নিয়া, নর্থ ক্যারোলাইনা, পোর্টল্যান্ড, ওরেগন এবং নিউ ইয়র্ক শহরেও বিক্ষোভ হয়েছে। নির্বাচনের ফলাফল ঘিরে সহিংসতার আশঙ্কায় আগে থেকেই বিভিন্ন শহরের ব্যবসায়ীরা তাদের দোকানপাট তালাবন্ধ করেছেন।

সিবিএস নিউজের সাংবাদিক ক্রিস্টিনা রুফিনি তার টুইটার একাউন্টে বিক্ষোভের একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল পাল্টে দিতে সক্ষম ব্যাটলগ্রাউন্ড কিছু রাজ্যের চূড়ান্ত ফল এখনও প্রকাশ না হলেও নিজের জয়ের ঘোষণা দিয়েছেন রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। এখনও কোটি কোটি ভোট গণনার বাইরে থাকলেও ট্রাম্প মিথ্যা জয় দাবি করেছেন।

বুধবার মধ্যরাতে হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুমে দেয়া ভাষণে নিজের জয়ের ঘোষণা দিয়ে ট্রাম্প বলেন, সত্যি বলছি, আমরা এই নির্বাচনে জিতেছি।

এর আগে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন বলেছিলেন, তিনি নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের ব্যাপারে আস্থাশীল। আগামী কয়েক ঘণ্টা অথবা কয়েকদিন কিছু রাজ্যে ভোট গণনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত সমর্থকদের ধৈর্যধারণের আহ্বান জানান তিনি।

দেশটির কয়েক ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যে জয় পাওয়ার পর হোয়াইট হাউসে ভাষণ দেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি বলেন, সত্যি কথা বলতে, আমরা এই নির্বাচনে জয়ী হয়েছি।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী আইনে চূড়ান্ত ফল ঘোষণার জন্য সব রাজ্যের ভোট গণনা শেষ করার নিয়ম রয়েছে। অতীতের নির্বাচনের সব রেকর্ড ভেঙে দেশটিতে আগাম ভোটের রেকর্ড হওয়ায় সেগুলো গণনা করতে আরও কয়েকদিন এমনকি কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

নিজেকে বিজয়ী দাবি করে ট্রাম্প বলেন, আমরা বিজয়ের জন্য প্রস্তুত ছিলাম। সত্যি কথা বলতে, আমরা বিজয়ী হয়েছি। তবে কোনও ধরনের প্রমাণ উপস্থাপন ছাড়াই নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে বলেও দাবি করেছেন তিনি।

ট্রাম্প বলেন, এটা মার্কিন জনগণের সঙ্গে প্রতারণা। নির্বাচনী ফল নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, আমরা সুপ্রিম কোর্টে যাব। আমরা ভোট গণনার কার্যক্রম এই মুহূর্তে বন্ধ চাই। যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এটি খুবই দুঃখজনক একটি মুহূর্ত।

জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেয়ার আগে এক টুইট বার্তায় ডেমোক্র্যাটিক পার্টির বিরুদ্ধে ভোট চুরির চেষ্টার অভিযোগ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার রাতে টুইটারে মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট তার কাছ থেকে নির্বাচন ছিনিয়ে নিতে ডেমোক্র্যাট শিবির চুরির চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন।

এদিকে, ট্রাম্প নিজেকে জয়ী দাবি করলেও এখন পর্যন্ত বেসরকারি ফলাফলে এগিয়ে আছেন রিপাবলিকান দলীয় জো বাইডেন। সাবেক এই ভাইস প্রেসিডেন্ট এখন পর্যন্ত ২৩৮টি এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৩টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট।

সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন