২৬ লাখ টাকার মধ্য ৫ হাজার চু’রি করে ধ’রা

প্রকাশিত: অক্টো ২৯, ২০২০ / ১১:৪৮অপরাহ্ণ
২৬ লাখ টাকার মধ্য ৫ হাজার চু’রি করে ধ’রা

যশোরের অভয়নগরে ব্যাংকের মধ্যে গ্রাহকের টাকা চু’রি’র সময় রিপন (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে ধরে পুলিশে সো’প’র্দ করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার নওয়াপাড়া বাজারে সোনালী ব্যাংক নওয়াপাড়া শাখায় এ ঘটনা ঘটে।

সোনালী ব্যাংক নওয়াপাড়া শাখার ব্যবস্থাপক এএসএম শামছুদ্দীন আহমেদ শামীম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরের পর নওয়াপাড়া বাজারের মেসার্স তানজীর ট্রেডার্সের এক কর্মকর্তা ২৬ লাখ টাকা জমা দিতে একটি ব্যাগ নিয়ে ব্যাংকে আসেন। টাকা জমা দেওয়ার উদ্দেশ্যে ক্যাশ কাউন্টারে টাকার ব্যাগ রেখে দাঁড়ালে একজন ব্যক্তি ওই টাকার ব্যাগটিকে আ’ড়া’ল করার চে’ষ্টা করেন। কৌ’শ’লে ওই ব্যক্তি ব্যাগ কে’টে টাকা বের করতে শুরু করেন। বিষয়টি ক্যাশ কাউন্টারের কর্মকর্তা রুহুল আমিনের চোখে পড়লে তিনি চো’র চো’র বলে চি’ৎ”কার শুরু করেন। এ সময় গেটে কর্তব্যরত আনসার সদস্য ও সিকিউরিটি গার্ড গেট বন্ধ করে দেয়। ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্র’চে’ষ্টা’য় চো’র’কে ধরা হয় এবং ব্যাগ থেকে চু’রি করা পাঁচ হাজার টাকা চো’রে’র নিকট থেকে উ’দ্ধা’র করা হয়। পরে অভয়নগর থানা পুলিশের নিকট চো’র’কে সো’প’র্দ করা হয়।

মেসার্স তানজীর ট্রেডার্সে যোগাযোগ করা হলে জানা যায়, দিনের লেনদেনের ২৬ লাখ টাকা জমা দিতে গিয়েছিল প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তা। চু’রি যাওয়া পাঁচ হাজার টাকা উ’দ্ধা’র এবং চো’র’কে ধরে পুলিশে সো’প’র্দ করায় সোনালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার ভারপ্রার্প্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম জানান, সোনালী ব্যাংক নওয়াপাড়ায় শাখা কর্তৃপক্ষ গ্রাহের টাকা চু’রি’র অ’প’রা’ধে রিপন নামে এক ব্যক্তিকে আমাদের নিকট সো’প’র্দ করেছে। তাকে আ’ট’ক করে থানা হে’ফা’জ’তে আনার পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মনে হয়েছে সে একজন প্র’তা’র’ক। নিজেকে কখনও খুলনা, কখনও বাগেরহাট জেলার লোক বলে দা’বি করছে। পরিচয় গো’প’ন করার চেষ্টা করছে। প্রকৃত নাম পরিচয় জানতে বিভিন্ন থানায় যোগাযোগ করা হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মা’ম’লা প্রক্রিয়াধীন আছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন