নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ সংযোগ পেল

প্রকাশিত: অক্টো ৭, ২০২০ / ০৬:৪৭অপরাহ্ণ
নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেলপথ সংযোগ পেল

নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি সীমান্তে রেলপথ সংযোগের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে জেলার ডোমার উপজেলার চিলাহাটি সীমান্তের ৭৮২ নম্বর পিলারের কাছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর উপস্থিতিতে ওই রেলপথের সংযোগ স্থাপিত হয়।

রেলওয়ে সূত্রমতে, ১৯৬৫ সালের পর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি পরিত্যক্ত রেলপথটি চালুর উদ্যোগ নেয় দুই দেশের সরকার। এ উদ্যোগে নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটি রেলস্টেশন থেকে সীমান্ত পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণকাজ প্রায় সমাপ্তের পথে।

এর আগে ভারত হলদিবাড়ি রেল স্টেশন থেকে সীমান্ত পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণকাজ সমাপ্ত করলেও তাদের অংশে জিরো পয়েন্টে দেড়শ মিটার অবশিষ্ট ছিল। মঙ্গলবার বিকেলে অবশিষ্ট অংশের কাজ সমাপ্ত করে বাংলাদেশের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে দিয়েছে ভারতীয় রেলওয়ে কতৃপক্ষ।

১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট পাক-ভারত বিভক্তের পরে এ পথে রেল চলাচল চালু ছিল। সে সময়ে এ পথে দুই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলাচল করত যাত্রী ও মালবাহি ট্রেন। ১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধের পর বন্ধ হয় দুই দেশের মধ্যে রেল চলাচল।

বন্ধ থাকা রেলপথটি চালু করতে ৮০ কোটি ১৬ লাখ ৯৪ হাজার টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প হাতে নেয় বর্তমান সরকার। গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর চিলাহাটি রেল স্টেশন চত্বরে প্রকল্পটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন। চলতি বছরের ২৮ আগস্ট চিলাহাটির জিরো পয়েন্টে ভারত-বাংলাদশ সংযোগস্থলে রেলপথের নির্মাণ কাজের পরিদর্শন করেন তিনি।

এসময় তিনি জানিয়েছিলেন, চলতি বছরের ডিসেম্বর অথবা ২০২১ সালের ২৬ র্মাচ বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর র্পূতি উপলক্ষে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদী এ পথে রেল চলাচলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। করোনা পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে সেটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সম্পন্ন হবে।

চিলাহাটি স্টেশন মাস্টার মো. মোমিন উদ্দিন প্রামানিক দুই দেশের সীমান্তে রেলপথ সংযোগ স্থাপনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন