স্ত্রীর শরীর পো’ড়াল সিগারেটের আগুনে

প্রকাশিত: অক্টো ৬, ২০২০ / ০৭:০৪অপরাহ্ণ
স্ত্রীর শরীর পো’ড়াল সিগারেটের আগুনে

নাটোরের গুরুদাসপুরে যৌ’তু’কের টাকা না পেয়ে স্ত্রী রোজিনা খাতুনের মুখে বালিশ চেপে মারপিটের পর জ্বলন্ত সিগারেট দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুড়িয়ে ক্ষতবি’ক্ষত করার অ’ভি’যোগ উঠেছে স্বামী মিঠুন আলীর বি’রু’দ্ধে।

সোমবার রাতে উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়নের পাটপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতিত গৃহবধূ রোজিনা ওই গ্রামের রবিউল ইসলামের মেয়ে। মিঠুন একই গ্রামের আবদুল আলিমের ছেলে।

সোমবার রাতে গুরুদাসপুর থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে এসে রোজিনা তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে স্বামী কর্তৃক নি’র্যা’তনের ক্ষ’ত চিহ্নগুলো দেখান। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নিজেই বাদী হয়ে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়িকে অ’ভি’যুক্ত করে থানায় অ’ভি’যোগ দিয়েছেন।

রোজিনা জানান, প্রেমের সম্পর্কের পর ছয় মাস আগে পারিবারিকভাবে মিঠুন আলীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। ৬ মাস যেতে না যেতেই মিঠুন যৌতুকের জন্য তাকে বিভিন্নভাবে নি’র্যা’তন শুরু করে।

তার পিতা-মাতা মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে নগদ দুই লাখ টাকা যৌ’তু’ক বাবদ মিঠুনকে প্রদান করেন। কিছুদিন পরে আবার নি’র্যা’তন করতে থাকে। আবার তার বাবার বাড়ি থেকে আরও দেড় লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলে।

তিনি জানান, যৌ’তু’কের ওই টাকা দিতে অস্বীকার করলে মিঠুন তার ওপর নি’র্যা’তনের এক পর্যায়ে সোমবার রাতে তার সমস্ত শরীরে এলোপাতাড়িভাবে আ’ঘা’ত করে এবং শরীরের স্পর্শকাতর জায়গায় জ্বলন্ত সিগারেটের আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। রোজিনার চিৎকারে এলাকাবাসী ও স্বজনরা রোজিনাকে উদ্ধার করে গুরুদাসপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

হাসপাতালের টিএইচএ মুজাহিদুল ইসলাম জানান, তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে সিগারেটের আ’গু’নে পু’ড়া’নোর চিহ্ন পাওয়া গেছে।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত চলছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন