জবা কি পারবে মিন্নিকে ফাঁ’সি থেকে বাঁচাতে

প্রকাশিত: অক্টো ৬, ২০২০ / ০১:৫১অপরাহ্ণ
জবা কি পারবে মিন্নিকে ফাঁ’সি থেকে বাঁচাতে

দেশের আদালতপাড়ায় এখন সবচেয়ে আলোচিত নামগুলোর একটি আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি। বরগুনায় রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলার অন্যতম প্রধান সাক্ষী থেকে আ’সামি বনে যাওয়া রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ আ’সামির মৃ’ত্যুদ’ণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। প্রাপ্তবয়স্ক অপর ৪ আ’সামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

ইতোমধ্যে বরগুনার আদালতে ‘ন্যায়বিচার’ পাননি দাবি করে মিন্নির বাবা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছেন। শেষ পর্যন্ত কি মিন্নি মুক্তি পাবে, নাকি তার ফাঁ’সিই হচ্ছে- এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা আছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

এদিকে স্টার জলসার ধারবাহিক ‘কে আপন কে পর’-এ সম্প্রতি নানা ধরনের ঘটনার ঘনঘটা দেখছেন দর্শক। ইতোমধ্যেই দর্শকেরা দেখেছেন- জবা নামের সুন্দরী মেয়েটি ও পরমের বাড়িতে হানা দিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা।

সিরিয়ালটিতে জবা-পরমের পরিবারকে হোস্টেজ৯ হিসেবে দেখানো হচ্ছে। কারণ বিচারপতি জবা সেনগুপ্তের বিচারাধীন পুরো একটি কেস। ওই কেসের রায়ের ওপরই নির্ভর করছে জবার পরিবার দুষ্কৃতিকারীদের হাত থেকে রেহাই পাবে কি পাবে না।

ধারাবাহিকটির গল্পে টানটান উত্তেজনার পাশাপাশি রয়েছে জবার বিচারাধীন ওই মামলার টুইস্ট। ঠিক যেমনটা টুইস্ট করেছে বাংলাদেশের বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত হ’ত্যাকাণ্ড। এই হ’ত্যাকা’ণ্ডে শুরুতে রিফাতর স্ত্রী মিন্নি নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেও পরে তিনিও ফেঁসে যান।

শুরুতে মিন্নিকে খালাস দেয়া হলেও পরে আরও ৫ আ’সামির সঙ্গে তার বিরুদ্ধেও ফাঁ’সির দণ্ডাদেশ দেন আদালত। তবে অন্তর্জালের জনতা রিফাতের সঙ্গে মিন্নির এই ছলচাতুরিকে স্বাভাবিকভাবে নেয়নি। ফলে মিন্নিকে নিয়েও চলছে ট্রোল।

মিন্নির এই মৃ’ত্যুদ’ণ্ডকে ‘কে আপন কে পর’ ধারাবাহিকের জবা চরিত্রের সঙ্গে মিলিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই সরব হয়েছেন। অনেকেই ট্রোল করে বলছেন- জবা কি পারবে মিন্নিকে বাঁচাতে? কারণ জবা চরিত্রটি একজন আইনজীবীর আর মিন্নি এখন মৃ’ত্যুদ’ণ্ডপ্রাপ্ত একজন আ’সামি। এ কারণেই এসব ট্রোল চলছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন