ইবি শিক্ষার্থী তিন্নির মৃ’ত্যু’র বি’চারের দা’বিতে মানববন্ধ’ন

প্রকাশিত: অক্টো ৩, ২০২০ / ০৭:৪৪অপরাহ্ণ
ইবি শিক্ষার্থী তিন্নির মৃ’ত্যু’র বি’চারের দা’বিতে মানববন্ধ’ন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী উলফাত আরা তিন্নির র’হস্যজনক মৃ’ত্যু’র ঘটনায় ফুঁ’সে উঠেছে এলাকাবাসী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ। এই ঘটনার জের ধরে আজ (শনিবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ ও এলাকাবাসী মানববন্ধ’ন করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি ও সেক্রেটারি স্বাক্ষরিত যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন।

শৈলকুপার থানার পুলিশ পরিদর্শন (তদন্ত) মহসিন হোসেন জানান ইতোমধ্যে এজহারভুক্ত ৪ জন আ’ট’ক করা হয়েছে। এলাকাবাসীর মধ্যে থ’মথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এলাকাবাসী ও বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী উলফাত আরা তিন্নীকে (২৫) ধ’র্ষ’ণ ও বাড়িঘরে হা’মলার ঘটনায় তার মা হালিমা খাতুন বাদি হয়ে শৈলকুপা থানায় মা’ম’লা দায়ের করেন। ইতোমধ্যে মা’মলায় এজাহারভুক্ত লাবিদ হোসেন, নজরুল, তন্ময় ও আমিরুল কে আ’ট’ক করা হয়েছে তবে ঘটনার মূ’লহোতা মৃ’ত্যু’র বোন মিন্নির সাবেক স্বামী জামিরুল ইসলাম ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। গ্রে’ফতারকৃতরা সবাই ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপা থানার শেখপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ, এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধারা বিচার ও ভুক্তভোগীর পরিবারের নি’রাপত্তা ও বি’চারের দা’বিতে মানববন্ধ’ন করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখার ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি নুরুনন্নবী ইসলাম সবুজ ও সেক্রেটারি জি কে সাদিক যৌথ স্বাক্ষরিত বার্তায় তিন্নি হ’ত্যা’র বি’চারসহ দেশব্যাপী নারীর উপর সহিংস’তা বন্ধে বিবৃতি দিয়েছেন।

মৃ’ত্যু’র বোন মিন্নি আক্তার বলেন, ‘আমাদের পরিবারের ওপর কোন হু’ম’কি দেওয়া হয়নি কিন্তু যারা আত্মীয়স্বজন আছে তাঁদের হু’ম’কি দেওয়া হচ্ছে। আমার বোন হ’ত্যা’র সর্বোচ্চ শা’স্তি দাবি করছি।’

শৈলকুপা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো: মুহসিন হোসেন জানিয়েছেন, ‘এজহারভুক্ত ৪ জনকে আ’ট’ক করা হয়েছে। অভিযান অব্যাহত আছে।’

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম বলেন, ‘তিন্নির মৃ’ত্যু’র বিষয়টি আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছি।’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ বলেন, ‘আমি ঘটনা স্থলে গিয়েছি। সে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন