লা’শ দেশে আনতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চায় শাহ আলমের পরিবার

প্রকাশিত: অক্টো ৩, ২০২০ / ০৬:৩০অপরাহ্ণ
লা’শ দেশে আনতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চায় শাহ আলমের পরিবার

ওমানে মা’রা যাওয়া শ্রমিক কচুয়ার শাহ আলমের লা’শ দেশে আনতে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চায় মৃ’তের পরিবার। লা’শ দেশে ফেরত আনতে ওমান দূতাবাস, প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়েরও সহযোগিতা চেয়েছেন তারা। নি’হতের ১৮ দিন পেরিয়ে গেলেও পড়ে রয়েছে ওমানের হি’মঘরে।

জানা গেছে, কচুয়া উপজেলার উত্তর সেঙ্গুয়া গ্রামের আব্দুল হোসেন গাজীর ছেলে শাহ আলম গাজী দীর্ঘ ১০ বছর যাবত ওমানে কাজ করছেন। গত ১৫ সেপ্টেম্বর ওমান সোহার শহরের নির্মাণাধীন ভবনের পানির ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে প্রা’ণ হা’রান শাহ আলম।

পানির ট্যাংক পরিষ্কারের জন্য প্রথমে হারুন নামের কুমিল্লার একজন ট্যাংকে নামেন কিন্তু তাকে উপরে উঠে আসতে না দেখে তার সহযোগী শাহ আলমও নিচে নামেন; তাকেও আর উপরে উঠে আসতে না দেখে সঙ্গে থাকা লোকজন পুলিশে খবর দেন। পরে তার লা’শ উদ্ধার করে ওমান সোহার শহরের একটি হাসপাতালের হি’মঘরে রাখা হয়েছে বলে পরিবার জানিয়েছে।

নি’হত শাহ আলম মিয়ার ভাই শাহীন আলম বলেন, আমার ভাই চলতি বছরে দেশে আসার কথা থাকলেও ক’রোনার কারণে দেশে আসতে পারেনি। ওমানের সোহার শহর থেকে ভাইয়ের লা’শ দেশে আনতে অনেক হ’য়রানি, কাগজপত্র ও অনেক অর্থের প্রয়োজন। আমাদের পক্ষে সবকিছু জোগাড় করা সম্ভব নয় বিধায় আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,ওমান দূতাবাস ও প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা কামনা করছি। এরই মধ্যে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে আবেদন ও কিছু কাগজপত্র জমা দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

নি’হত শাহ আলম মিয়ার স্ত্রী রুমা বেগম দুই ছেলে ও ১ মেয়েকে নিয়ে তার স্বামীর লা’শ ফিরে আসার অপেক্ষার প্রহর গুনছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন