চুল দাড়ি গোঁফ কেটেও রেহাই পেল না গণধ’র্ষ’ণের আ’সামী তারেক

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৯, ২০২০ / ১০:১৫অপরাহ্ণ
চুল দাড়ি গোঁফ কেটেও রেহাই পেল না গণধ’র্ষ’ণের আ’সামী তারেক

গ্রে’ফ’তার থেকে বাঁচতে চুল দাড়ি গোঁফ কেটে আত্মীয়ের বাড়িতে আত্মগোপন করেছিল সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণ’ধ’র্ষ’ণ মা’ম’লার ২নং আ’সা’মি তারেকুল ইসলাম তারেক। তাতেও রক্ষা পেল না সে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা থেকে তাকে গ্রে’ফ’তার করে র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে উপজেলার জগদল ইউনিয়নের কাওয়াজুড়ি গ্রামের সমছু মিয়ার স্ত্রী ও ছেলে বদরুলকে আ’ট’ক করে র‌্যাব।

এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে গরমা গ্রামের আলি হোসেনের বাড়ি থেকে তারেককে আ’ট’ক করা হয়। এ সময় তারেকের মাথায় চুল ও মুখে দাড়ি ছিল না। এমনকি সে নিজেকে লুকিয়ে রাখতে গোঁফও ছেঁটে ফেলে দেয়।

এ নিয়ে মামলায় এজাহারনামীয় ৬ আ’সা’মিসহ মোট আটজনকে গ্রে’ফ’তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিন করে রি’মা’ন্ডে নেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধ’র্ষ’ণের শিকার হন ওই তরুণী। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই তরুণীকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধ’র্ষ’ণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে বেঁধে রাখা হয়।

এ ঘটনায় ভি’ক’টিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরান থানায় মামলা করেন। মা’ম’লায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও তিনজনকে আ’সা’মি করা হয়।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন