দুই শতাধিক লঞ্চযাত্রী অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৭, ২০২০ / ১০:৪০অপরাহ্ণ
দুই শতাধিক লঞ্চযাত্রী অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে অল্পের জন্য বেঁচে গেছে দুই শতাধিক লঞ্চের যাত্রী। লঞ্চের তলা ফুটো হয়ে যখন ডুবু ডুবু অবস্থা, ঠিক সেই সময়ে বিাইডব্লিউটিএর ড্রেজিং কাজে নিয়োজিত একদল কর্মী লঞ্চটিকে জাহাজ দিয়ে ঠেলে ডুবো চরে তোলে দেয়। আর এভাবেই রক্ষা পায় এমভি শ্রেষ্ঠ-২ নামের কাঁঠালবাড়িগামী লঞ্চের যাত্রীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটের বিআইডব্লিউটিএর ড্রেজিং কাজে নিয়োজিত লিভারম্যান ফরিদ উদ্দিন জানান, আজ রবিবার রাত ৮টার দিকে শ্রেষ্ঠ-২ নামের লঞ্চটি পদ্মার সেতুর ২৫নং পিলার পার হওয়ার পর পর হঠাৎ লঞ্চে ভেতর থেকে যাত্রীদের কান্না-কাটির আওয়াজ শুনতে পাই।

বুঝতে পারছিলাম কোনো একটা বিপদ হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে আমার একটা জাহাজ নিয়ে লঞ্চটিকে ঠেলে কাছের একটি ডুবো চরের ওপর তুলে দেই। ততক্ষণে লঞ্চ আধা ডুবো হয়ে যায়।

ধারণা করছি লঞ্চের তলা ফুটো হয়ে গিয়েছিল। আমরা সব যাত্রীদের উদ্ধার করে আমাতের ড্রেজারে তুলি। পরে তাদের ট্রলারে করে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে পৌঁছে দেই।

মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক সিরাজুল কবির জানিয়েছেন, লঞ্চ দু’র্ঘ’টনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সিবোট নিয়ে দু’র্ঘ’টনাস্থলে ছুটে যাই। লঞ্চের সব যাত্রী উদ্ধার হয়েছে। কেউ নিখোঁজ নেই। লঞ্চটি সন্ধ্যা ৭টার কিছু সময় পূর্বে শিমুলিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে যায়।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন