মা’দকাসক্ত ২৬ পুলিশ শনাক্ত, শুরু হয়েছে চাকরিচ্যুত করার প্রক্রিয়া

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৬, ২০২০ / ০৮:২৯অপরাহ্ণ
মা’দকাসক্ত ২৬ পুলিশ শনাক্ত, শুরু হয়েছে চাকরিচ্যুত করার প্রক্রিয়া

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন বিভাগ ও ইউনিটে ‘ডো’প টেস্ট’ শুরু করা হয়েছে। এই ডোপ টেস্টে এখন পর্যন্ত ২৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

পজিটিভ আসা ওই ২৬ জনকে চাকরিচ্যুত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। আজ শনিবার সকালে রাজধানীর মিরপুরে ডিএমপির নবসৃষ্ট ট্রাফিক মিরপুর বিভাগের উপপুলিশ কমিশনারের কার্যালয় উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মা’দ’কের বিষয়ে আমরা সন্দেহভাজন পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করিয়েছি। এর মধ্যে ২৬ সদস্যের পজিটিভ রিপোর্ট পেয়েছি। এই ২৬ জনকে চাকরিচ্যুত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।’

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস এভাবে তাদের বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারলে বাকিদের জন্য সুস্পষ্ট মেসেজ যাবে যে, আমরা কাউকে ছাড় দিবো না। আমাদের এই উদ্যোগের ফলে অনেকে ভালো হয়েছে এবং এ রাস্তা থেকে ফিরে এসেছে।

পুলিশ সদস্য যারা মা’দকের সঙ্গে সম্পৃক্ত আছে বা মা’দ’ক ব্যবসায়ীকে সহযোগিতা করছে সরাসরি তাদের বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা নিয়ে গ্রে’প্তার করা হচ্ছে। এ বিষয়ে কোনো রকম শিথিলতা দেখানো হচ্ছে না। একজন সাধারণ মা’দ’ক ব্যবসায়ীর বি’রু’দ্ধে যেভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে ঠিক সেভাবে মা’দ’কের সঙ্গে সম্পৃক্ত পুলিশ সদস্যের বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’

পরে এই বিষয়ে জানতে চাইলে শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ডিএমপির কয়েকটি বিভাগ ও ইউনিট থেকে একটি তালিকা নিয়েছিলাম। সেখানে মোটামুটি ১০০-এর মতো পুলিশ সদস্য ছিল। তাদের ডোপ টেস্ট করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাকিদেরও করা হবে।

তবে এই ২৬ জনের শাস্তির কারণে যদি কেউ মা’দ’ক থেকে সরে আসে তাহলে তাকে আমরা সুযোগ দিতে চাই। আমরা কিছুটা সময় নিয়ে সামনে আবার ডো’প টেস্ট করতে চাই। সন্দেহ হলে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরও টেস্ট করাব।’

জানতে চাইলে ডিএমপির জনসংযোগ শাখার উপকমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন বলেন, ‘এটা কমিশনার স্যারের নির্দেশে করা হয়েছে। ডিএমপির নানা বিভাগসহ আমার বিভাগ থেকেও তালিকা করা হয়েছে। এরপরে আর কবে টেস্ট করা হবে সেটাও কমিশনার স্যার জানেন।’

উপপুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মীর রেজাউল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) এ কে এম হাফিজ আক্তারসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন