তুরস্কের ইসলামী ইতিহাস নির্ভর সিরিজের জনপ্রিয়তা যুক্তরাষ্ট্রেও বাড়ছে

প্রকাশিত: আগ ১২, ২০২০ / ১০:২২অপরাহ্ণ
তুরস্কের ইসলামী ইতিহাস নির্ভর সিরিজের জনপ্রিয়তা যুক্তরাষ্ট্রেও বাড়ছে

বিগত কয়েক বছরে তুরস্কে নির্মিত বিভিন্ন নাটক-সিনেমা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। দিনদিন দর্শকদের আগ্রহের ভিত্তিতে এসব নাটক-সিনেমা মূল তুর্কিভাষা থেকে ডাবিং করা হচ্ছে নানা ভাষায়।

খুব অল্পসময়ে বিশ্বব্যাপী তুর্কি চলচ্চিত্রের অসংখ্য দর্শক গড়ে ওঠেছে। এরমধ্যে উসমানীয় সাম্রাজ্যের গৌরবময় উত্থানের সত্য কাহিনি অবলম্বনে নির্মিত জনপ্রিয় তুর্কি সিরিজ ‘দিরিলিস আরতুগ্রুল’ এর দর্শক সবচেয়ে বেশি।

বাংলাদেশের একটি প্রজন্ম রীতিমতো ‘দিরিলিস’ জ্বরে কাঁ’প’ছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আদেশে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ‘পিটিভি’ তে এই সিরিজ উর্দুতে সম্প্রচারিত হওয়ার পর থেকে পাকিস্তানেও ব্যাপক দিরিলিস-ভক্ত তৈরি হয়েছে।

পাকিস্তানের ক্রীড়া ও চলচ্চিত্র জগতের একাধিক তারকা দিরিলিস আরতুগ্রুলের প্রতি ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন। ফাস্টবোলার মোহাম্মাদ আমের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিরিলিস নিয়ে আলোচনা করেছেন।

তা ছাড়া ভক্তদের সবাইকে এই সিরিজ দেখার আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন এবং পরামর্শ দিচ্ছেন। তুর্কি সিরিজের বিশ্বব্যাপী অসংখ্য ভক্তকুলের মধ্যে রয়েছেন মার্কিন পপ সংগীতশিল্পী কার্ডি বি। তিনি তুর্কি সিরিজ ‘কোসেম সুলতান’ দেখে মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

আর এখন তিনি নতুন কোনো তুর্কি সিরিজ দেখার অপেক্ষা করছেন- এজন্য কার্ডি বি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তার অনুসারীদের কাছে জানতে চেয়েছেন, এখন তার কোন সিরিজটি দেখা উচিৎ।

একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, কোসেম সুলতান দেখার পর তিনি ঘুমাতে পারছেন না, যতটুকু চোখ বন্ধ হয় শুধু দুঃস্বপ্ন দেখেন। সিরিজে কোসেম সুলতানের মৃত্যু তার ঘুম কেড়ে নিয়েছে।

টুইটে তুর্কিদের সম্মোধন করে কার্ডি বি লিখেছেন, আমি এখন কোন সিরিজটি দেখতে পারি? তোমাদের পরামর্শ চাই!

তার এই টুইটে রি-টুইট করেছেন তুরস্কের শোবিজ ইন্ডাস্ট্রির একজন পরিচালক। তুরস্কের দিরিলিস ভক্তদের উদ্দেশ্য করে তিনি লিখেছেন, তোমরা কার্ডি বিকে ‘দিরিলিস আরতুগ্রুল’ দেখার পরামর্শ দাও, আর তোমরা কেন এটি দেখো এবং পছন্দ করো- তাও তাকে জানাও।

এই ঘটনার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় ব্যক্তিরা ইসলামি ইতিহাস নির্ভর সিরিজের ইতিবাচকতা লক্ষ্য করছেন। তাদের দাবি, এভাবেই ‘মুসলিম সংস্কৃতি’ যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বময় ছড়িয়ে যাবে।

উর্দূ সংবাদমাধ্যম ডেইলি জং অবলম্বনে- আশফাক জাদিদ

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন