রায়হান কবির কেমন আছেন জানালেন নিযুক্ত আইনজীবী

প্রকাশিত: জুলা ৩০, ২০২০ / ১০:৫৪পূর্বাহ্ণ
রায়হান কবির কেমন আছেন জানালেন নিযুক্ত আইনজীবী

আল জাজিরার প্রতিবেদনে মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে অভিবাসীদের প্রতি বৈষম্য মূলক আচরণের অভিযোগ তুলে সাক্ষাৎকার দেয়ার পর গ্রেফতার হন বাংলাদেশি রায়হান কবির। রবিবার ২৬ শে জুলাই তার পক্ষে নিযুক্ত আইনজীবীগণ ইমিগ্রেশন বিভাগেকে একটি অফিসিয়াল ইমেইলের মাধ্যমে তার সাথে সাক্ষাতের জন্য একটি দিন নির্ধারণ করার আবেদন জানায়।

অবশেষে আজ আইনজীবী সি সেলভারাজা এবং সুমিতা ইমিগ্রেশন পুত্রাজায়ায় তার সাথে আইনি সাক্ষাৎ করার সময় তাকে গ্রেফতারের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। রায়হান কবির আইনজীবীদের বিভিন্ন তথ্য দিয়েছেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ঐ দুজন আইনজীবী।

আজ সাক্ষাৎকার শেষে তারা উপস্থিত গণমাধ্যমকে জানান আমরা রায়হান কবিরের সাথে সাক্ষাৎ করেছি মামলার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছি। রায়হান ভালো আছে। ইমিগ্রেশন বিভাগের তরফ থেকে তার প্রতি সকল ধরনের টেক কেয়ার করা যাচ্ছে।

তিনি বলেছেন তিনি সুস্থ আছেন স্বাভাবিক আছেন। ইমিগ্রেশনের বিরুদ্ধে তার কোন অভিযোগ নেই। তিনি নিরাপদেই আছেন। তার প্রতি কোন ধরনের খারাপ আচরণ করা হয়নি এবং খাবার দাবারও সবকিছু ভালো দেয়া হচ্ছে।

সেলভারাজা বলেছেন তার ক্লায়েন্টকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য তারিখ আও সময় জানতে চেয়ে ইমিগ্রেশন বিভাগকে আবারও ইমেইল করা হবে। তিনি কর্তৃপক্ষের পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার অপেক্ষায় আছেন।

সি সেলভারাজা আরও বলেন, রায়হান কবির মালয়েশিয়ার সকল জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এবং বলেছিলেন যে লকডাউন চলাকালীন সময়ে বিদেশিদের উপর অত্যাচার করা হয়েছিলো এমন মন্তব্য করে দেশকে কলুষিত করার ইচ্ছা ছিলো না তার। তিনি যেকোনো মুহূর্তে তার নিজ দেশে ফেরত যেতে প্রস্তুত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

তিনি মালয়েশিয়ার জনগণের নিকট ক্ষমা চেয়েছেন কারণ তিনি আল জাজিরার প্রতিবেদনে এমন কথা বলতে ইচ্ছুক ছিলেন না কারণ তিনি মহামারীর সময়ে ইমিগ্রেশন অভিযানে তার বন্ধুকে দেখেছেন হাত কড়া পড়িয়ে নিয়ে যেতে।

এটা দেখেই তার খারাপ লেগেছে তাই তিনি অনুতপ্ত হয়ে ক্ষমা চেয়েছেন। মালয়েশিয়ার আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাউকেই তিনি দোষারোপ করার উদ্দেশ্য ছিলোনা তার তবে এমন পরিস্থিতি দেখে যা অনুভব করেছেন তাই বলেছেন।

আল জাজিরাতে মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে সাক্ষাৎকার প্রদানের অভিযোগে ইতিমধ্যেই তার ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করা হয়েছে এবং তাকে আজীবনের জন্য মালয়েশিয়া থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে যাতে তিনি আর মালয়েশিয়া প্রবেশ না করতে পারেন।

উল্লেখ্য যে গত ২৪ শে জুলাই বিকাল ৫ টা ৪০ মিনিটে রায়হানকে কুয়ালালামপুরের সেতাপাকের জেআইএম পুত্রজায়া অপারেশনস ইন্টেলিজেন্স ইউনিট এর একটি দল জালান পাহাং এর একটি কনডোমিনিয়াম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিলো।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন