আর চলতে পারে না রাতের আঁধারে ভোট চু’রি : রিজভী

প্রকাশিত: জুন ২৬, ২০২০ / ০৫:১৫অপরাহ্ণ
আর চলতে পারে না রাতের আঁধারে ভোট চু’রি : রিজভী

সরকারের বি’রু’দ্ধে একদলীয় শা’স’ন ব্যবস্থা চালু করার অ’ভি’যোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী। তিনি বলেন,সরকার দেশে একদলীয় শা’স’ন ব্যবস্থা চালু রেখেছে। সুষ্ঠু নির্বাচন দেয় না। রাতের অন্ধকারে ভোট চুরি করছেন। এটা চলতে পারে না।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষ এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান এর মৃ’ত্যু’তে নতুন ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুল আলিম নকীকে নিয়ে মাজার জিয়ারত করেন রিজভী।

তিনি বলেন,আমাদের ছেলেরা হারিয়ে যাচ্ছে গুম হচ্ছে। একের পর এক নিরুদ্দেশ হয়ে যাচ্ছে। লাখ লাখ জীবনের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি গণতন্ত্রের জন্য কথা বলার জন্য। তাহলে আজকে এ পরিস্থিতি কেন? মিছিল করা যায় না, কথা বলা যায় না।

আর কথা বলতে গেলে, ভিন্নমত প্রকাশ করলে সে গুম হয়ে যাচ্ছে। গ্রে’ফ’তার করা হচ্ছে, মিথ্যা মা’ম’লা দেয়া হচ্ছে। এটা অ’মা’নবিক রাষ্ট্রের একটি দৃষ্টান্ত। এখানে স্বাভাবিক জীবনযাপন করা যায় না।

তিনি আরও বলেন, আজকে গুমবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত হচ্ছে। বাংলাদেশে গুম হচ্ছে। বিচারবহির্ভূত হ’ত্যা’কাণ্ড হচ্ছে। এসব অ’প’কর্মের সঙ্গে রাষ্ট্র জড়িত।

রিজভী বলেন, আমাদের ছেলেরা হারিয়ে যাচ্ছে গু’ম হচ্ছে। একের পর এক নিরু’দ্দেশ হয়ে যাচ্ছে। লাখ লাখ জীবনের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি গণতন্ত্রের জন্য কথা বলার জন্য। তাহলে আজকে এ পরিস্থিতি কেন? মিছিল করা যায় না, কথা বলা যায় না।

আর কথা বলতে গেলে, ভিন্নমত প্রকাশ করলে সে গুম হয়ে যাচ্ছে। গ্রে’ফ’তার করা হচ্ছে, মিথ্যা মা’ম’লা দেয়া হচ্ছে। এটা অ’মা’নবিক রাষ্ট্রের একটি দৃষ্টান্ত। এখানে স্বাভাবিক জীবনযাপন করা যায় না।

দেশে মানুষের জান-মালের কোনো নিরাপত্তা নেই মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আজকে বি’রো’ধী দলের নেতাকর্মীরা থাকে জে’ল’খানায় আর সরকারি দলের নেতাকর্মীরা দু’র্নী’তি, লু’ট’পাট করে সারাদেশ দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।

তাহলে কি এই নি’ষ্ঠুর দু’র্নী’তি-লু’ট’পাটের জন্যই বি’রো’ধী দলকে দ’ম’ন করছেন? গু’ম করছেন? মিথ্যা মা’ম’লা দিয়ে কা’রা’গারে নেয়া হচ্ছে? গোটা রাষ্ট্রের সম্পদ আ’ত্ম’সাৎ করার জন্যই কি এগুলো করছেন? একদলীয় শা’স’নব্যবস্থা চালু রেখেছেন।

সুত্রঃ যুগান্তর

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন