এসএসসি’র ফল প্রকাশ সকাল ১১টায়

প্রকাশিত: মে ৩১, ২০২০ / ১০:৩৯পূর্বাহ্ণ
এসএসসি’র ফল প্রকাশ সকাল ১১টায়

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের অপেক্ষায় ২০ লাখ শিক্ষার্থী। এ জন্য ১৩ লাখ শিক্ষার্থী এসএমএসে ফলের জন্য নিবন্ধন করেছে। আজ রোববার সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২০ সালের এ পরীক্ষার ফল প্রকাশের কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

পরে বেলা ১১টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে ফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরবেন। বিটিভি সম্পূর্ণ বক্তব্য ধারণ করবে। নিউজ ও ফুটেজ সব ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রেরণ করা হবে।

ফুটেজ ও প্রাসঙ্গিক ডকুমেন্টস ই-মেইল, মেসেঞ্জার ও উই-ট্রান্সফারেও প্রেরণ করা হবে। পাশাপাশি ফেসবুকে লাইভ করা হবে। কমেন্ট অপশনে গিয়ে যে কেউ প্রশ্ন করতে পারবেন। বক্তব্য শেষে জবাব দেওয়া হবে।

তবে চলমান করোনা মহামারির এ সময়ে স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনায় গণমাধ্যমকর্মীদের ব্রিফিংয়ের স্থানে না আসার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে বলে জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইলেকট্রনিক মিডিয়ার জন্য বিটিভির মাধ্যমে ভিডিও ফুটেজ প্রেরণ করা হবে। অন্যান্য গণমাধ্যমকেও তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, আজ বেলা ১১টায় শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনের পর দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটগুলোতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। পাশাপাশি যেসব শিক্ষার্থী মোবাইলে ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছে, তাদের নির্ধারিত নম্বরে জিপিএ গ্রেডসহ ফল পাঠানো হবে।

পরীক্ষার ফল পেতে সারা দেশে এ পর্যন্ত ১৩ লাখ ২৩ হাজার ৭২৬ শিক্ষার্থী প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছে। যার মধ্যে গ্রামীণফোন থেকে পাঁচ লাখ ৭৪ হাজার ৫৯৯, রবি থেকে চার লাখ ৭১ হাজার ২৮৯, টেলিটক থেকে এক লাখ ১৫ হাজার ৯১৫ এবং বাংলালিংক থেকে এক লাখ ৬১ হাজার ৯২৩ শিক্ষার্থী রয়েছে। চলতি বছর মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন।

এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক সাংবাদিকদের বলেন, যারা রেজিস্ট্রেশন করবে, ফল প্রকাশের পর তাদের মোবাইল নম্বরে সার্ভারের মাধ্যমে জিপিএ গ্রেডসহ ফল পাঠানো হবে। তবে সবাই রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আসবে না, অনেকে ওয়েবসাইট ও টেলিটকের মাধ্যমে এসএমএস করে ফল জানবে।

এ কারণে সকলে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় না এলেও উদ্বেগের কিছু নেই। ফল প্রকাশের পর ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইটের প্রবেশ না করে পরীক্ষার্থীরা স্ব-স্ব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত নম্বরসহ ফল সংগ্রহের আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে, আগামী ৬-৭ জুন থেকে অনলাইন ভর্তি কার্যক্রম শুরুর প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ড। এ স্তরে ক্লাস কবে শুরু হবে, সেটি নির্ভর করছে পরিস্থিতির ওপর। তবে আগস্টে ক্লাস শুরুর লক্ষ্যে কাজ চলছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন