প্রাণ বাঁচানো চিকিৎ‌সকদের নামে ছেলের নাম রাখলেন বরিস

প্রকাশিত: মে ৩, ২০২০ / ১০:৩৪পূর্বাহ্ণ
প্রাণ বাঁচানো চিকিৎ‌সকদের নামে ছেলের নাম রাখলেন বরিস

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন নিজের মুখেই বলেছিলেন, চিকিৎ‌সকদের প্রাণপণ লড়াইয়ে করোনাভাইরাসকে হারিয়ে সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন তিনি। এবার কৃতজ্ঞতা প্রকাশে সে দুই চিকিৎসকের নামের সঙ্গে মিলিয়েই নিজের সদ্যোজাত সন্তানের নাম রাখলেন বরিস জনসন ও তাঁর বাগদত্তা ক্যারি সিমন্ডস।

বরিস-সিমন্ডস যুগল তাঁদের সন্তানের নাম রেখেছেন উইলফ্রেড লরি নিকোলাস জনসন। সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে বরিসের বাগদত্তা ক্যারি সিমন্ডস জানান, বরিস জনসন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর যে দুই চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন, তাঁদের নাম সন্তানের নামের সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন। এ ছাড়া বরিস ও তাঁর বাগদত্তার দুই পিতামহের নাম থেকেও খণ্ডাংশ মিলিয়ে ছেলের নাম রেখেছেন তাঁরা।

ইনস্টাগ্রামে গতকাল শনিবার সন্তান কোলে নিজের ছবি শেয়ার করেন সিমন্ডস। সে পোস্টেই সদ্যোজাত সন্তানের নামের ব্যাখ্যা দেন তিনি। সন্তানের নামের বিবরণ দিয়ে সিমন্ডস বলেন, বরিস জনসনের দাদার নাম থেকে এসেছে উইলফ্রেড আর তাঁর নিজের দাদার নাম থেকে নেওয়া হয়েছে লরি। আর নিকোলাস রাখা হয়েছে বরিসকে চিকিৎসা দেওয়া দুই চিকিৎসক নিক প্রাইস ও নিক হার্টের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে।

ক্যারি সিমন্ডসের ‘প্রাইভেট’ করে রাখা ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে ছবি নিয়ে বরিস-সিমন্ডস যুগলের সন্তানকে পৃথিবীতে স্বাগত জানিয়ে পোস্ট করেন ব্রিটিশ পরিবারের সাবেক রাজবধূ ডাচেস অব ইয়র্ক সারাহ ফার্গুসন।

এদিকে, ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগের কর্মীদেরও ধন্যবাদ জানিয়েছেন ৩২ বছর বয়সী সিমন্ডস। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাগদত্তা লেখেন, ‘এর বেশি খুশি হওয়া যায় না। আমার হৃদয় আজ পরিপূর্ণ।’

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর লন্ডনের একটি হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) টানা কয়েক দিন ছিলেন বরিস জনসন। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ফেরার দিনকয়েক পর গত বুধবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পুত্রসন্তানের বাবা হন।

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর বরিস জনসনের প্রতিক্রিয়া ছিল এমন, ‘ব্যাপারটি অন্য রকমও হতে পারত।’ গত বুধবার ছেলের জন্মের সময় স্ত্রীর পাশেই ছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। পরে সেখান থেকে করোনা মহামারি মোকাবিলার নেতৃত্ব দিতে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের কার্যালয়ে ফেরেন বরিস।

ডাউনিং স্ট্রিট সূত্রে খবর, বরিস জনসন চলতি বছরের শেষে কিছু দিনের জন্য পিতৃত্বকালীন ছুটি নেবেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন