সেলিম মালিক ১৯ বছর পর ফি’ক্সিংয়ের কথা স্বীকার করলেন

প্রকাশিত: এপ্রি ২৯, ২০২০ / ০৬:০৯অপরাহ্ণ
সেলিম মালিক ১৯ বছর পর ফি’ক্সিংয়ের কথা স্বীকার করলেন

উনিশ বছর পর ম্যাচ ফি’ক্সিং’য়ে জ’ড়ি’ত থাকার অ’ভি’যোগ স্বীকার করলেন পাকিস্তানের সাবেক ব্যাটসম্যান সেলিম মালিক। পাশাপাশি এ ক’বছর তার প্রতি পাক ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) বঞ্ছনার প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন তিনি। বললেন, অন্যদের মতো সহযোগিতা পাননি।

১৯৯২ বিশ্বকাপজয়ী পাকিস্তান দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন মালিক। তার বি’রু’দ্ধে ২০০০ সালে ম্যাচ ফি’ক্সিং’য়ের অ’ভি’যোগ ওঠে। অস্ট্রেলিয়ার তিন ক্রিকেটারকে ঘুষের প্রস্তাব দেয়ার কথা চাউর হয় তারকা ক্রিকেটারের। ফলে সবধরনের ক্রিকেটে তাকে আজীবন নি’ষি’দ্ধ করে পিসিবি। কিন্তু তখন দো’ষ স্বীকার করেননি তিনি।

অবশেষে ফি’ক্সিং কাণ্ডে জ’ড়ি’ত থাকার বিষয়টি স্বীকার করলেন মালিক। সোমবার তিনি বললেন, হ্যাঁ, আমি ম্যাচ গড়াপেটায় সংশ্লিষ্ট ছিলাম। তবে ১৯ বছর আগে যা করেছি, এজন্য আমি দুঃখিত ও অনুতপ্ত।

আইসিসি ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে এ ব্যাপারে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাসও দিয়েছেন মালিক। একইসঙ্গে বোর্ডের প্রতি ক্ষো’ভ ঝেড়েছেন তিনি।

পাক কিংবদন্তি বলেন, আট বছর বয়সে আমি ক্রিকেট খেলা শুরু করি। সারাজীবন শুধু এটিই খেলেছি। ক্রিকেটই আমার রুটি-রুজির পথ ছিল। তাই স্বদেশের কাছে আরও সহানুভূতি আশা করেছিলাম।

তার আবেদন, ম্যাচ পাতা’নোয় যুক্ত ক্রিকেটারদের যেন মানবাধিকার আইনে বিচার হয়। সেলিমের আক্ষেপ, ২০০৮ সালে জাতীয় দলের প্রধান কোচ এবং ২০১২ সালে সেই দলের ব্যাটিং কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করেছিলাম।

কিন্তু আমার আবেদন গ্রাহ্য করা হয়নি। স্পট ফি’ক্সিং কে’লে’ঙ্কারি থেকে মোহাম্মদ আমির, সালমান বাট, মোহাম্মদ আসিফদের নিস্তার দেয়া হয়েছে। তাই আমারও একটা সুযোগ পাওয়া উচিত ছিল।

তথ্যসূত্র: টাইমস নাউ

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন