স্বজনরা জানাননি গৃহবধূর জ্বর-সর্দি-কাশির কথা, অবশেষে মৃত্যু

প্রকাশিত: এপ্রি ২৮, ২০২০ / ০৫:৪২অপরাহ্ণ
স্বজনরা জানাননি গৃহবধূর জ্বর-সর্দি-কাশির কথা, অবশেষে মৃত্যু

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে এক গৃহবধূর (২২) মৃত্যু হয়েছে। তার নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

মৃত গৃহবধূ খানসামা উপজেলার খামারপাড়া ইউনিয়নের দুহশুহ গ্রামের চাঁদমিয়া মেম্বার পাড়ার বাসিন্দা। তিনি কয়েকদিন ধরে জ্বর, সর্দি-কাশিতে ভুগছিলেন। নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তার পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলেছে উপজেলা প্রশাসন।

এর আগে সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে তিনি মারা যান। খামারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজেদুল হক সাজু ওই নারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বিষয়টি পরিবারের লোকজন গোপন রেখেছিল। গৃহবধূর জ্বর, সর্দি-কাশির কথা কাউকে জানানো হয়নি। পরে স্থানীয় লোকদের মাধ্যমে জানতে পারি ওই নারী কয়েকদিন ধরে জ্বর, সর্দি-কাশিতে ভুগছিলেন।

উপসর্গগুলো করোনোভাইরাসের মতো হলেও তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাননি স্বজনরা। পরে উপজেলা প্রশাসনকে ও স্বাস্থ্য বিভাগকে বিষয়টি জানালে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

এ বিষয়ে খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম বলেন, ওই নারী অসুস্থ হওয়ার বিষয় আমাদের জানাননি স্বজনরা।

মৃত্যুর খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠায়। নমুনা পরীক্ষার ফলাফল না আসা পর্যন্ত ওই পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। জাগো নিউজ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন