খাদ্যবান্ধব-চাল মে’রে দিচ্ছে চৌকিদার!

প্রকাশিত: এপ্রি ২৩, ২০২০ / ০৬:৩৬অপরাহ্ণ
খাদ্যবান্ধব-চাল মে’রে দিচ্ছে চৌকিদার!

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১১ জন সুবিধাভোগীর কার্ড জা’লি’য়াতি করে আবু সালে নামের এক চৌকিদারের বি’রু’দ্ধে চাল আ’ত্ম’সাতের অ’ভি’যোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের চৌকিদারের বি’রু’দ্ধে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে সুবিধাবঞ্চিত হতদ’রিদ্র ১১ জন কৃষক উপস্থিত হয়ে এমন অ’ভি’যোগ তোলেন।

মো. আমির হোসেনসহ অন্যান্য অ’ভি’যোগে উল্লেখ করেন, একবছর আগে ওই কার্ড দিয়ে একবার চাল আমরা নিজেরাই উত্তোলন করি। এরপর কার্ড যাচাই-বাছাইয়ের কথা বলে কৃষকদের কাছ থেকে কার্ড নিয়ে যান ৮ নম্বর ওয়ার্ডের অ’ভি’যুক্ত গ্রাম পুলিশ আবু সালেহ।

এর পর থেকে প্রায় একবছর যাবৎ কার্ডে জাল সই দিয়ে এবং ছবি পরিবর্তন করে ডিলারের কাছ থেকে চাল উত্তোলন করে অন্যত্র বিক্রি করে আসছিলেন তিনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মেজবাহ খান জানায়, এ ঘটনা ভু’ক্ত’ভো’গীরা আমাকে অবহিত করলে আমি চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলেচনা করি এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি।

স্থানীয় ডিলার মাওলানা মো. ওমর ফারুক বলেন, আমি কার্ডধারীকে চাল দিই। কার্ডের মালিক শনাক্ত করা আমার দায়িত্ব না, এগুলো শনাক্ত করবেন চেয়ারম্যান-মেম্বাররা।

তদারকি কর্মকর্তা লিটন চন্দ্র রায় জানান, আমার কাছে এ বিষয় কখনো কেউ অ’ভি’যোগ করেনি। অ’ভি’যোগ পেলে যাচাই করে ব্যবস্থা গ্রহণ কারতাম। ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম সিকদার জানায়, অ’ভি’যুক্ত চৌকিদার বে’প’রোয়া এবং মা’দ’কসেবী।

তার বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনা করে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানায়, ভু’ক্ত’ভোগীদের অ’ভি’যোগের ভিত্তিতে বিষয়টি যাচাই করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

এ বিষয় সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার এবং চেয়াম্যানদের সঙ্গে আলোচনা করে অ’ভি’যুক্ত চৌকিদারের বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সুত্রঃ কালের কন্ঠ

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন