মৃত্যুর ৬ ঘণ্টা পর রাস্তার পাশ থেকে লা’শ উদ্ধার করল পুলিশ

প্রকাশিত: এপ্রি ১৯, ২০২০ / ০৮:৪১অপরাহ্ণ
মৃত্যুর ৬ ঘণ্টা পর রাস্তার পাশ থেকে লা’শ উদ্ধার করল পুলিশ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় শনিবার বিকালে মারা গিয়ে রাস্তার ধারে পড়ে থাকে এক মানসিক প্র’তিবন্ধীর (৪০) লাশ। ক’রো’না আ’ত’ঙ্কে স্থানীয়ভাবে কেউ লা’শটির কাছে যাওয়ার সাহস পায়নি।

অবশেষে প্রায় ৬ ঘণ্টা পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে লা’শটিকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

রোববার সকালে মৃত ব্যক্তির শরীর থেকে করো’না’ভা’ইরাসের নমুনা সংগ্রহ করার জন্য লাশ রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে নমুনা সংগ্রহের পর ময়নাতদন্তের জন্য লা’শটিকে দুপুরে ম’র্গে পাঠানো হয়।

রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রোববার আমরা সংগৃহীত নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠিয়েছি।

দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মুহম্মদ সহিদুল ইসলাম জানান, তার স্কুল গেটের পাশে একটা বন্ধ দোকানের সামনে শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ওই অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃত্যু হয়। আস্তে আস্তে সেখানে ভিড় জমলেও আ’তঙ্কে কেউ লা’শে’র কাছে যেতে সাহস করেনি।

তিনি বলেন, মৃ’ত ব্যক্তি মানসিক প্র’তিবন্ধী ছিল। তার এক পায়ে পূর্বের কোনো আঘাতজনিত কারণে বড় ধরনের ঘা ছিল। পাশাপাশি খুবই অসুস্থ ছিল বলে শুনেছি।

দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান মণ্ডল জানান, খবর পেয়ে আমি ইউএনও ও থানার ওসিকে অবগত করি। তারা আমাকে স্থানীয়ভাবে অথবা আঞ্জুমান-ই-মফিদুলের মাধ্যমে লা’শটি দা’ফনের ব্যবস্থা করতে বলেন।

কিন্তু করো’না’ভা’ই’রাসের আতঙ্কে এলাকার কেউ লা’শ’টির কাছে যেতে সাহস পায়নি। পরে ঝ’ড়-বৃষ্টি শুরুর প্রাক্কালে (রাত সাড়ে ১০টা) পুলিশ এসে লা’শটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, আমরা রাতেই লা’শটি উদ্ধার করি। রোববার লাশটির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। এ ছাড়া ক’রোনা পরীক্ষার জন্য নমুনাও সংগ্রহ করা হয়েছে। এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি অপমৃ’ত্যু মা’ম’লা দায়ের হয়েছে।

সুত্রঃ যুগান্ততর

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন