পচা মাংস বিক্রি করে গণধো’লাই খেলো বিক্রেতা

প্রকাশিত: এপ্রি ১, ২০২০ / ০৬:২১অপরাহ্ণ
পচা মাংস বিক্রি করে গণধো’লাই খেলো বিক্রেতা

বরগুনার তালতলীতে গরুর পচা মাংস বিক্রির অপরাধে কসাই জালালকে জনতা গণধো’লাই দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সো’পর্দ করেন।

ইউএনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সেলিম মিঞা কসাই জালালকে ৫ হাজার টাকা জ’রি’মানা করেছেন।

বুধবার সকালে তালতলী উপজেলা সদরে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তালতলী উপজেলা সদরের কসাইখানা বসে বুধবার সকালে। কসাই জালাল গরু জ’বা’ই করে নতুন মাংসের সঙ্গে পুরনো পচা মাংস মি’শিয়ে বিক্রি করছিল। বিষয়টি আবু সালেহ নামে এক ক্রেতার কাছে নজরে আসে।

আবু সালেহ এর প্রতিবাদ করলে কসাই জালাল ক্ষেপে যান। স্থানীয় জনতা পচা মাংস দেখে কসাই জালালকে গণধো’লা’ই দেয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সেলিম মিঞার কাছে তাকে হস্তান্তর করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক কসাই জালালকে পাঁচ হাজার টাকা জ’রি’মানা করেন এবং আর কখনও এমন কাজ করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেন।

ক্রেতা আবু সালেহ বলেন, কসাই জালাল নতুন মাংসের সঙ্গে পচা মাংস মিশিয়ে আমার কাছে বিক্রি করেছে। বিষয়টি টের পেয়ে এর প্র’তি’বাদ করলে আমার ওপর ক্ষে’পে যায় ক’সাই জালাল। পরে স্থানীয় জনতা তাকে গণধোলাই দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সো’পর্দ করেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেলিম মিঞা বলেন, পচা মাংস বিক্রির অপ’রা’ধে কসাই জালালকে পাঁচ হাজার টাকা জ’রি’মানা করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন