কোয়ারেন্টিনে নিজের চুল কাটলেন নোবেলজয়ী মালালা

প্রকাশিত: মার্চ ২৯, ২০২০ / ০৬:৪৯অপরাহ্ণ
কোয়ারেন্টিনে নিজের চুল কাটলেন নোবেলজয়ী মালালা

ছোট ছোট করে ছাঁটা কপালের সামনের চুল। ফ্যাশনের ভাষায় যাকে ‘ফ্রিঞ্জ’ বলে। মালালা ইউসুফজাইকে এর আগে এরকম লুকে কখনো দেখা যায়নি।

সাদামাটা, একেবারে সাধারণ লুকেই সবসময় দেখা যায় তাকে। তাহলে কি ফ্যাশন স্টেটমেন্ট পরিবর্তন করলেন নোবেলজয়ী এই তরুণী? মালালার নতুন ছবি দেখার পর অনেকেই এই প্রশ্ন তুলেছেন।

আসলে বিশ্বজুড়ে কোভিড-১৯ এর জেরে অনেক দেশই এখন লকডাউন। বাড়ির বাইরে পা রাখা মানা। লোকজনকে বাড়িতে আটকে রাখতে অনেক জায়গায় কারফিউ জারি হয়েছে।

অগত্যা বাড়ি বসে কী কী করা যায়, সেকথাই এখন ভাবছেন গৃহবন্দিরা। মালালার ক্ষেত্রেও তাই। হোম কোয়ারেন্টিনে একঘেয়ে হয়ে নিজেই নিজের চুল কাটলেন। আর সেই ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করলেন।

মালালা ইউসুফজাইয়ের ফ্রিঞ্জ করে কাটা চুলের ছবি কিন্তু এরই মধ্যে ভাইরাল। অনেকেই প্রশংসা করে নানা কথা বলছেন কমেন্ট বক্সে। বাড়িতে নিজের চুল কাটার আগে অবশ্য মালালা তাঁর ব্যক্তিগত চুল ও ত্বক বিশেষজ্ঞ জনাথন ভ্যান নেসের সঙ্গে শলা পরামর্শও করেছেন।

কিন্তু জনাথন এইসময়ে মালালাকে একা নিজের চুল কাটতে একাধিকবার বারণ করলেও তিনি শোনেননি। খানিকটা শিশুসুলভ বায়না ধরেই নিজের লুক এক্সপেরিমেন্ট করে ফেলেছেন। তবে আখেরে তাতে খারাপ যে কিছুই হয়নি। তা মালালার পোস্টের নিচে তাঁর ব্যক্তিগত চুল-ত্বক বিশেষজ্ঞ জনাথনের মন্তব্য দেখলেই বোঝা যায়।

ক্যাপশনে মালালা জনাথনের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, ‘জনাথন ভ্যান নেস আমাকে বার বার মানা করেছিলেন কোয়ারেন্টিনে থাকাকালীন নিজের চুল কাটা নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে! কিন্তু আমি, অবশেষে নিজেই ফ্রিঞ্জ কেটে বসলাম।

আমি কি ঠিকঠাক কাটতে পেরেছি?’ প্রশ্নের উত্তরে জনাথনও বলেন, ‘বেশ পেরেছ বই কী!’ অক্সফোর্ডের ছাত্রী মালালা এখন বাড়ির বাইরে বেরুতে পারছেন না। তাই দিন কয়েক আগে বন্ধুদের মিস করে একটি পোস্টও করেছিলেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন