নিউইয়র্কে করোনায় একদিনে ৪ বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রকাশিত: মার্চ ২৫, ২০২০ / ১২:১৭অপরাহ্ণ
নিউইয়র্কে করোনায় একদিনে ৪ বাংলাদেশির মৃত্যু

ভারতে করোনায় মৃত বেড়ে ১১

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশটিতে এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১-তে। এর মধ্যে দুজন বিদেশি নাগরিক রয়েছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বুধবার ভোরে তামিলনাডুতে মৃত্যু হয় ৫৪ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির। এটি তামিলনাডুতে প্রথম মৃত্যু। মাদুরাইতে করোনা পজিটিভ অবস্থায় ভর্তি ছিলেন ওই ব্যক্তি। তার ডায়াবেটিস ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা ছিল।

বুধবার সকাল পর্যন্ত ভারতে এ ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬২ জন। ১১ মার্চ করোনা ভাইরাসকে মহামারি ঘোষণা দেয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এরপর থেকেই নড়চড়ে বসেছে প্রতিটি দেশ। ভারতেও জারি করা হয়েছে বাড়তি সতর্কতা।

মঙ্গলবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজের ভাষণে বুধবার থেকে দেশ লকডাউনের ঘোষণা করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটাও এক ধরনের কার্ফু। কেউ বাড়ি থেকে বেরতে পারবেন না। এভাবেই করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচানো সম্ভব।’

মোদি বলেন, ‘২১ দিন নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে ২১ বছর পিছিয়ে যেতে হবে আপনাদের।’

নিউইয়র্কে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুজন নারী ও দুজন পুরুষ মারা গেছেন। এলমাস্ট হাসপাতালে মারা গেছেন একজন পুরুষ (৬০) এবং দুজন নারী, তাদের বয়স যথাক্রমে (৭০) ও (৪২)।

প্লেইনভিউ হাসপাতালে আরও একজন পুরুষ (৫৭) মারা যান। নিউইয়র্কে এ নিয়ে সাত বাংলাদেশি মারা গেলেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিউম্যান রিসোর্স এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বোর্ড অব ইলেকশনের সদস্য মাজেদা আক্তার বলেন, মেয়র অফিস থেকে আমাদের জানানো হয়েছে আক্রান্তদের বেশিরভাগই ট্যাক্সিচালক এবং ডেলিভারি কাজে নিয়োজিত। তাদের মাধ্যমে পরিবারের সদস্যরাও আক্রান্ত হন।

তিনি আরও বলেন, আমরা যারা বাংলাদেশি কমিউনিটর উন্নয়নের জন্য কাজ করি- তাদের মেয়র অফিসে থেকে জানানো হয়েছে বাংলাদেশি মানুষের মৃত্যু সংবাদগুলো।

আরও বলা হয়েছে, যেনো আমরা বাংলাদেশিদের এই ভাইরাস সম্পর্কে সতর্ক করি। বাইরে অযথা ঘোরাফেরা না করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে সবাইকে।

গত ২৩ মার্চ মারা যান ৩৮ বছরের এক নারী। আগের সাপ্তাহে মারা গেছেন আরও দুই বাংলাদেশি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন