রোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত বেড়ে ১৬৫১৯

প্রকাশিত: মার্চ ২৪, ২০২০ / ১০:২৯পূর্বাহ্ণ
রোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃত বেড়ে ১৬৫১৯

রোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৫১৯ জনে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তিন লাখ ৭৯ হাজার ৩৭৫ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে এক লাখ ৪৮৪ জন। নেদারল্যান্ডসভিত্তিক বার্তা সংস্থা বিএনও নিউজ এ খবর জানিয়েছে।

এরই মধ্যে বিশ্বের ১৯৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এর মধ্যে ইতালির পরিস্থিতি বরাবরের মতোই ভয়াবহ অবস্থায় রয়েছে। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ছয় হাজার ৭৭ জনে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ হারিয়েছে ৬০১ জন। এ ছাড়া আক্রান্ত হয়েছে ৬৩ হাজার ৯২৭ জন।

ইউরোপে ইতালির পর সবচেয়ে ভয়াবহ দশা স্পেনের। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে মৃতের হার বেড়েছে ৩০ শতাংশ। দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা ইরানকেও ছাড়িয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত স্পেনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৩৩১ জনের। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ হাজার ১৩৬ জনে। অন্যদিকে, করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত ৮৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া আক্রান্ত হয়েছে মোট ১৯ হাজার ৮৫৬ জন।

জার্মানিতে ১১৯ জন মৃতের পাশাপাশি আক্রান্ত হয়েছে ২৯ হাজার ২৮২ জন। সুইজারল্যান্ডে ১২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা আট হাজার ৭৯৫ জন। নেদারল্যান্ডসে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২১৩ জনের। আর আক্রান্ত হয়েছে চার হাজার ৭৪৯ জন।

এদিকে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় রাস্তায় দুইয়ের অধিক ব্যক্তির একসঙ্গে চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। করোনা সন্দেহে কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার আগে এ ঘোষণা দেন তিনি। এ ছাড়া নিউজিল্যান্ডে চলছে ৪৮ ঘণ্টার সেলফ আইসোলেশন। আগামীকাল বুধবার থেকে এক মাসের লকডাউন ঘোষণা করতে যাচ্ছে দেশটি।

করোনায় ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৮২ জনে। এ ছাড়া মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৫ হাজার ৩২২ জন। সেখানে ২৫ ভাগ মানুষ হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় রিপাবলিকানদের আনা ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনৈতিক সহায়তা প্রস্তাব গ্রহণ করেনি বিরোধীদল ডেমোক্র্যাট। অন্যদিকে, করোনা মোকাবিলায় ইরান ও উত্তর কোরিয়াকে যুক্তরাষ্ট্র সহায়তা দিতে চায় বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। ইরান সরকারের হিসাব অনুযায়ী, সেখানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে এক হাজার ৮১২ জনের। এ ছাড়া আক্রান্ত হয়েছে ২৩ হাজার ৪৯ জন। অন্যদিকে, করোনা মোকাবিলায় ট্রাম্পের সহায়তার প্রস্তাবকে ভণ্ডামি আখ্যা দিয়ে তা ফিরিয়ে দিয়েছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি।

এদিকে ইরানের প্রতিবেশী আরব আমিরাতে বাতিল করা হয়েছে সব বিমান চলাচল। আর সৌদি আরবজুড়ে ২১ দিনের আংশিক কারফিউ জারি করা হয়েছে।

করোনা আতঙ্কে বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের ১৯টি রাজ্য পুরোপুরি লকডাউন করা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে সব অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট। করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অর্থনৈতিক সহায়তা বিল আনতে পার্লামেন্টে আহ্বান জানিয়েছে দেশটির বিরোধীদল কংগ্রেসের নেতা অধির রঞ্জন চৌধুরী। আর করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে করপোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটির আওতায় এক লাখ কোটি রুপি সংগ্রহ ও ব্যয় নির্ধারণের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

এদিকে, রাশিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কম হওয়ায় চলছে আলোচনা। বলা হচ্ছে, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রথম থেকেই ব্যবস্থা নিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দেশটি গত ৩০ জানুয়ারির মধ্যেই সীমান্ত বন্ধ করে দেয়। এরপর অনেকগুলো এলাকা কোয়ারেন্টিন করা হয়।

বিশ্বব্যাপী এমন পরিস্থিতির মধ্যেও এ ভাইরাসের আক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা কম নয়। এ ছাড়া ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের অভ্যন্তরে এখন সংক্রমণ নেই বললেই চলে। যে কজন আক্রান্ত মিলছে, সবাই বিদেশফেরত।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন