রক্তের ‘এ’ গ্রুপ ক’রো’নার বেশি ঝুঁ’কিতে, কম ঝুঁ’কিতে ‘ও’ গ্রুপ

প্রকাশিত: মার্চ ১৭, ২০২০ / ১১:০০অপরাহ্ণ
রক্তের ‘এ’ গ্রুপ ক’রো’নার বেশি ঝুঁ’কিতে, কম ঝুঁ’কিতে ‘ও’ গ্রুপ

প্রা’ণ’ঘা’তী ক’রো’না’ভা’ইরাসের কাঁপছে বিশ্ব। চীনের পরে পরেই ইতালিতে যেন মৃ’ত্যুর মিছিল চলছে। এমন পরিস্থিতিতে এক গবেষণা বলছে, যারা এ গ্রুপের (দ্বিতীয় র’ক্তের ধরন) রক্ত বহন করছেন তারা ক’রো’না আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার সবচেয়ে বেশি আ’শ’ঙ্কায় রয়েছেন। আবার যারা ও গ্রুপের র’ক্ত বহন করছেন তারা কম শঙ্কায় রয়েছেন।

চীনের এক দল বিজ্ঞানীর করা এক গবষেণাপত্রে এমন তথ্য জানানো হয়েছে। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে মেডরেক্সিভ ওয়েবসাইটে। বিজ্ঞানীরা উহান ও শেনজেন হাসপাতালের দুই হাজার রোগীর তথ্য নিয়ে এই গবেষণা করেছেন।

বিজ্ঞানীদের মতে, উহানের নাগরিকদের মধ্যে ৩৪ শতাংশ ও গ্রুপের (প্রথম রক্তের ধরন) র’ক্ত বহন করছেন, ৩২ শতাংশ বহন করছেন এ গ্রুপের (দ্বিতীয় র’ক্তের ধরন) রক্ত।

আর ২৫ শতাংশ বি গ্রুপের (তৃতীয় রক্তের ধরন) বহন করছেন এবং ৯ শতাংশ বহন করছেন এবি গ্রুপ (চতুর্থ রক্তের ধরন)। এই তথ্য পেতে বিজ্ঞানীরা উহানের তিন হাজার সাতশ সুস্থ নাগরিকের র’ক্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন।

বিজ্ঞানীরা এই সময়ে আবার ক’রো’না আ’ক্রা’ন্ত রোগীদের নিয়েও গবেষণা করেছেন। তারা দেখতে পান উহানে করোনা আ’ক্রা’ন্ত রোগীর ৩৮ শতাংশই এ গ্রুপের র’ক্ত বহন করছেন। আর অন্যদিকে, ২৬ দশমিক ৪ শতাংশ রোগী বি গ্রুপের এবং ২৫ দশমিক ৮ শতাংশ রোগী ও গ্রুপের র’ক্ত বহন করছেন। সবচেয়ে কম রোগী (১০ শতাংশ) এবি গ্রুপের র’ক্ত বহন করছেন।

ওই তথ্যগুলো পাওয়ার পর আবারো শুরু হয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা। তারপর তিনশ ৮৯ জন ক’রো’না আ’ক্রা’ন্ত রোগীর র’ক্ত নিয়ে চলে গবেষণা। তখনো তারা দেখতে পান ক’রো’না আ’ক্রা’ন্ত সবচেয়ে বেশি রোগীই এ গ্রুপের র’ক্ত বহন করছেন।

আর তুলনামূলক কম ব্যক্তি বহন করছেন ও গ্রুপের র’ক্ত। নতুন তথ্য তাদের এই তত্ত্বকে প্রমাণ করেছে। তাই সিদ্ধান্তে পৌঁছান যে এ গ্রুপের র’ক্তের বাহকরা সবচেয়ে বেশি ক’রো’না আ’ক্রা’ন্তের ঝুঁকিতে।

গত বছরের শেষের দিকে ক’রো’না ভা’ই’রাস ছড়িয়ে পড়ে চীনের উহানে। কিন্তু সেখানেই আ’ট’কে থাকেনি এই মা’রণ ভা’ই’রাস। ১৩০ টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে। সারা বিশ্বের প্রায় সাত হাজার মানুষ এই ভা’ই’রাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে প্রাণ হা’রিয়েছেন। এক লাখ ৭০ হাজার মানুষ আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন। চীনের পরে পরেই ইতালিতে যেন মৃ’ত্যু’র মিছিল চলছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন