আমানতের ৩২ কোটি টাকার হিসাব মৃত্যুর আগে দিয়ে গেলেন চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: মার্চ ১৫, ২০২০ / ১১:৪৬পূর্বাহ্ণ
আমানতের ৩২ কোটি টাকার হিসাব মৃত্যুর আগে দিয়ে গেলেন চেয়ারম্যান

সারাদেশ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সাবেক চার বারের চেয়ারম্যান ও পইল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সৈয়দ আহমদুল হকের মৃত্যুতে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার দুপুরে পইল উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দিন। তাঁর কর্মময় জীবনে বিভিন্ন বিরোধ নিস্পত্তিকালে বিচার ও সালিশ কাজের ৩২ কোটি টাকার আমানত ছিল, যার হিসাব তিনি মৃত্যুর আগেই দিয়ে গেছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য নিরঞ্জন দাস কামরুল হাসান জুনু, জ্ঞান সিন্ধু মল্লিক নানু, শংকর অধিকারী প্রমুখ।

এদিকে শুক্রবার বিকেলে সৈয়দ আহমদুল হকের জানাযায় লক্ষাধিক মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। সেখানে হবিগঞ্জ-৩ আসনের এমপি এডভোকেট মো. আবু জাহির তার নামে শায়েস্তানগর-পইল সড়কের নামকরণের ঘোষণা দেন।

জানাযার নামাজে আহমদুল হক এর ছেলে পইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ মঈনুল হক আরিফ জানান, তার বাবা সারাটি জীবন ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও গণমানুষের অধিকার নিয়ে কাজ করেছেন।

জীবনের শেষ মুহুর্তে এসেও এই কাজ করেছেন। তার এই কর্মময় জীবনে বিভিন্ন বিরোধ নিস্পত্তিকালে বিচার ও সালিশ কাজের ৩২ কোটি টাকার আমানতের হিসাব দিয়ে গেছেন।

জানাজায় অংশ নেয়া লাখো মুসল্লী এই তথ্য শুনে বিস্মিত হয়ে যান। অনেককেই মন্তব্য করেন, তার মত ব্যাক্তিত্ব হওয়ার কারনেই এটি তার পক্ষে সম্ভব হয়েছে। যে কারো পক্ষে এটা সম্ভব নয়।

অনেকেই বলেছেন, আহমদুল হকের কাছে হাজার কোটি টাকা থাকলেও একটি পয়সা খেয়ানত হবে না সেই বিশ্বাস রেখেইে মানুষ তার কাছে টাকা পয়সা আমানত হিসেবে রাখতো।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন