প্রাইভেট ছাত্রীকে ধ’র্ষ’ণ করে কা’রা’গা’রে রাবির দুই শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: মার্চ ১২, ২০২০ / ০৬:৫০অপরাহ্ণ
প্রাইভেট ছাত্রীকে ধ’র্ষ’ণ করে কা’রা’গা’রে রাবির দুই শিক্ষার্থী

ধ’র্ষ’ণে’র অ’ভি’যো’গে দায়ের করা মা’ম’লায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই ছাত্রকে কা’রা’গা’রে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ মখদুম হল থেকে গ্রে’প্তা’রে’র পর বৃহস্পতিবার দুপুরে অ’ভি’যু’ক্ত’দের আদালতে সো’প’র্দ করে। পরে আদালত অ’ভি’যু’ক্তদের কা’রা’গা’রে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গ্রে’প্তা’র’কৃ’তরা হলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের মো. জাহিদ হাসান শোভন (২৬) এবং সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তরুন (২৫)। তারা দুজনই ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা ও মা নগরীর মতিহার থানায় অ’ভি’যু’ক্তদের বি’রু’দ্ধে নারী ও শিশু নি’র্যা’ত’ন দ’ম’ন আইনে মা’ম’লা করেন।

মা’ম’লার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ভু’ক্ত’ভো’গী ছাত্রী জাহিদ হাসানের কাছে প্রাইভেট পড়তেন। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সকালে ওই ছাত্রী তার দুই সহপাঠীর সঙ্গে পড়তে যায়। পড়া শেষে জাহিদ গল্প করার কথা বলে ওই ছাত্রীকে নগরীর কাজলা এলাকায় রাজশাহী কমার্স কলেজের পাশে তরুনের বোনের বাসায় নিয়ে যায়।

সেখানে ওই ছাত্রীকে ধ’র্ষ’ণ করে জাহিদ। এ সময় তরুন পাশের কক্ষে বসে টিভি দেখছিলেন। জাহিদ ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্র’লো’ভন দেখিয়ে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর জন্য বলে।

পরবর্তীতে ওই ছাত্রী একাধিকবার বিয়ের কথা বললে জাহিদ বিষয়টি বারবার এড়িয়ে যেতে থাকে। এতে ওই ছাত্রী মা’ন’সি’ক’ভাবে ভে’ঙে পড়েন এবং তার পরিবারকে বিষয়টি জানায়।

জানতে চাইলে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রে’প্তা’র দুই ছাত্রকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আদালত তাদের কা’রা’গা’রে পাঠিয়েছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন