ধোনিকে সাতে নামানোর ব্যাখ্যা রবি শাস্ত্রীর

সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে ১৮ রানে হেরেছে ভারত। রেখে গেছে অনেক প্রশ্ন। তার মধ্যে বড় প্রশ্ন দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ে সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান এমএস ধোনি কেন সাতে ব্যাট করলেন। ধোনিকে সাতে ব্যাট করানো নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ গাঙ্গুলি কিংবা ভিভিএস লক্ষ্মণের মতো সাবেক তারকারা। প্রশ্ন আছে আরও অনেকের।

তাদের মতে, ধোনির পাঁচে ব্যাট করা উচিত ছিল। তাতে ঋষভ পান্ত, হার্ডিক পান্ডিয়াদের নির্দেশনা দিয়ে খেলিয়ে নিতে পারতেন ধোনি। ভুল শট খেলে ঋষভ-পান্ডিয়াদের আউট হতে দিতেন না। তবে ভিন্ন ব্যাখ্যা দিলেন ভারতের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। জোর দিয়েই বললেন, ধোনিকে সাতে নামানোর সিদ্ধান্ত ঠিক ছিল। এছাড়া দলের সিদ্ধান্তেই ধোনিকে সাতে নামানো হয় বলে উল্লেখ করেন ভারতীর কোচ।

তিনি বলেন, ‘এটা দলের সিদ্ধান্ত। দলের সবার ওই সিদ্ধান্তে মত ছিল। আর ওটা খুবই সাধারণ একটা সিদ্ধান্ত। ধোনি আগে ব্যাট করতে এসে আউট হয়ে গেলে রান তাড়া করার আশা শেষ হয়ে যেত। সে সর্বকালের সেরা ফিনিশারদের একজন। তার অভিজ্ঞতা আমাদের শেষে দরকার ছিল। এই প্রশ্নে দলের কারও মনে কোন দ্বিধা ছিল না।’

ভারত শুরুতে ৫ রানে তিন উইকেট হারায়। ২৪ রানে হারায় ৪ উইকেট। আর দলের শত রানের আগে ছয় উইকেট হারায় তারা। সেখান থেকে ধোনি এবং জাজেদা দলকে জয়ের প্রান্তে আনেন কিন্তু জেতাতে পারেননি। শাস্ত্রীর ব্যাখ্যা তাই সবার মন মতো হওয়ার কথা নয়। কারণ ২৪ রানে ৪ উইকেট পড়লে ভারতের জয়ের আশায় বড় ধাক্কা লাগে।

ব্যাটিংয়ে অনভিজ্ঞ ঋষভ পান্ত এবং হার্ডিক পান্ডিয়া ৩২ রান করেন। তারা আগে ভাগে আউট হলে আরও বড় ধাক্কা খেত ভারত। তখন অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর সুযোগ ধোনি পেতেন না। বরং জাদেজার সঙ্গে ধোনি শতরান ছাড়ানো জুটিটা পঞ্চম বা ষষ্ঠ উইকেটে হলে ফাইনালে খেলতে পারত ভারত। সেই জুটিটা শেষে হলেও পরাজিত দলে ভারত।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত