মাশরাফি ক্রিকেটার না হলে মাছের ব্যবসা করতেন

প্রকাশিত: মার্চ ৫, ২০২০ / ০৮:১৫অপরাহ্ণ
মাশরাফি ক্রিকেটার না হলে মাছের ব্যবসা করতেন

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে দিয়ে ক্যারিয়ারে অধিনায়কত্বের ইতি টানছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। শুক্রবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় তাদের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ। এর আগে বৃহস্পতিবার ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে খোদ তিনি নিজেই এ ঘোষণা দিলেন।

তবে এখনই অবসর নিচ্ছেন না মাশরাফি। খেলা চালিয়ে যাবেন তিনি। খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলকে প্রতিনিধিত্ব করবেন ম্যাশ। এদিন সকালেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

মাশরাফি মনে করেন, তার জীবনের সব অর্জন এসেছে এ ক্রিকেটের মাধ্যমেই। ক্রিকেটার হওয়ার কারণেই এ জায়গায় আসতে পেরেছেন তিনি। তবে কোনো কারণে ক্রিকেটকে পেশা বানাতে না পারলে মাছের ব্যবসা করতেন ওয়ানডে অধিনায়ক। পারিবারিক ব্যবসাকেই বেছে নিতেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

মাশরাফি বলেন, ক্রিকেটার হয়েছি বলেই আজ এ স্থানে বা পর্যায়ে পৌঁছতে পেরেছি। এ সম্মানজনক চেয়ারে বসতে পেরেছি। আমার জীবনে যা অর্জন, প্রায় সবই ক্রিকেটের জন্য। খেলাটি আমার রক্তে মিশে আছে।

যদি ক্রিকেট না খেলতাম হয়তো মাছের ব্যবসা করতাম। পারিবারিকভাবে আমাদের এ ব্যবসা আছে। আমাদের অনেক ঘের আছে। পরিবারের সবাই এটি করেন। আর কি করতাম? এটাই করতাম।

বাংলাদেশের হয়ে ২০১০ সালে ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে প্রথম আত্মপ্রকাশ করেন মাশরাফি। তবে হাঁটুতে লম্বা ইনজুরির কারণে দল থেকে ছিটকে যাওয়ায় অধিনায়কত্ব হারান তিনি। ২০১৪ সালে আবার নেতৃত্বে ফেরেন নড়াইল এক্সপ্রেস। এ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই। সেই তাদের বিরুদ্ধেই দলনায়ক হিসেবে ক্যারিয়ারের সমাপ্তি টানছেন তিনি।

মাশরাফিই বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ক্যাপ্টেন। তার অধীনে এখন পর্যন্ত ৮৭টি ওয়ানডে খেলেছে তারা। সর্বোচ্চ ৪৯টি ম্যাচে জয় পেয়েছেন টাইগাররা। ডানহাতি পেসারের নেতৃত্বেই প্রথমবার বিশ্বকাপের (২০১৫) কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেন লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

এরপর ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে জায়গা করে নেন তারা। মাশরাফির নেতৃত্বেই ক্রিকেট পরাশক্তি ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে ওডিআই সিরিজ হারায় বাংলাদেশ।

মাশরাফির ছোঁয়ায় বদলে গেছে বাংলাদেশ। দেশ-বিদেশে জিততে শিখেছে তারা। তার নেতৃত্বে প্রথম ৫০টি একদিনের ম্যাচ খেলেন টাইগাররা। দেশের ক্রিকেটকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। দলীয় সর্বোচ্চ রানের স্কোর গড়েন তারা। নড়াইল এক্সপ্রেসের নেতৃত্বেই প্রথম বহুজাতিক টুর্নামেন্ট জেতে ক্রিকেটের নব্য পরাশক্তি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন