আওয়ামী লীগ পাপিয়াকা’ণ্ডে বি’ব্রত নয়: কাদের

প্রকাশিত: মার্চ ৫, ২০২০ / ০৬:৫৩অপরাহ্ণ
আওয়ামী লীগ পাপিয়াকা’ণ্ডে বি’ব্রত নয়: কাদের

ব্যবসায়ীকে ব্ল্যা’ক’মেইল করে টাকা হাতিয়ে নেয়া, অবৈধ অ’স্ত্র রাখার অ’ভি’যোগে গ্রে’ফ’তার ব’হিষ্কৃ’ত যুব মহিলা লীগ নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়াকাণ্ডে আওয়ামী লীগ বি’ব্র’ত নয় বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ক্ষমতাসীন দলে কিছু অনু’প্রবেশকারী ঢুকে পড়ে এমন ইঙ্গিত দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, রুলিং পার্টিতে এ ধরনের বেনোজল (বন্যায় ভেসে আসা) ঢুকে পড়বেই। এখনও অনেক বেনোজল শা’স্তির পথে আছে।

আমাদের দলীয় অনেকেরই জ’ড়িত থাকার বিষয়ে আমরা বিব্র’ত হইনি, আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। অপ’রা’ধীকে অপ’রা’ধী হিসেবে দেখেছি। কাজেই এখানে আমরা বি’ব্রত নই। তারা কোন দলের লোক, কী তাদের পরিচয়, সেটি আমরা দেখিনি। বর্তমানেও আমরা এ নিয়ে বিব্র’ত নই।

অপ’রা’ধীদের বি’রু’দ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সৎ’সাহ’স সরকারের আছে জানিয়ে ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, এ ধরনের অ’প’রাধ, অ’প’কর্ম, একটা বিশাল দেশ বাংলাদেশ– হতেই পারে, কিছু বেনোজলও ঢুকবে। বেনোজল রুলিং পার্টিতে ঢুকবে।

বেনোজল আমরা প্রতিরোধ করতে জানি এবং এ বেনোজলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সৎসাহস শেখ হাসিনার সরকারের আছে। অতীতেও ছিল এখনও আছে।

আরও অনেকে নজরদারিতে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, শু’দ্ধি অ’ভি’যানের নজরদারিতে এখনও অনেক বেনোজল শা’স্তি মোকা’বেলা করার পথে আছে, নজরদারিতে আছে। কাজেই কেউ যেন মনে না করে কেউ একজনের পা’প, অ’প’রাধ দলীয় পরিচয় থাকার কারণে ঢাকা পড়ে যাবে অথবা শা’স্তি থেকে পার পেয়ে যাবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফি,

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হোসেন খান নিখিল, ঢাকা-১০ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পাপিয়াকে সম্প্রতি বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর পর তাকে সংগঠন থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

সুত্রঃ যুগান্তর

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন