পূর্ব আফ্রিকা পঙ্গপালের আ’ক্র’মণে ছা’র’খার

প্রকাশিত: মার্চ ২, ২০২০ / ০১:৫৫পূর্বাহ্ণ
পূর্ব আফ্রিকা পঙ্গপালের আ’ক্র’মণে ছা’র’খার

এখনই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে আগামী জুন মাসের মধ্যে পূর্ব আফ্রিকায় প’ঙ্গ’পালের সংখ্যা ৪০০ গুণ বৃদ্ধি পাবে বলে স’ত’র্ক করেছে রাষ্ট্রপুঞ্জের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (FAO)।

তীব্র খাদ্য সং’কটের আ’শঙ্কা
এই মুহূর্তে পূর্ব আফ্রিকায় খাদ্যাভাব চরমে। সেখানকার ১.৯ কোটি মানুষ ঠিকমতো খেতে পান না। এর মধ্যে সেখানকার বিভিন্ন দেশে ফসল তছনছ করছে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গ’পাল। এখনই এদের রোখা না গেলে সেখানে খাদ্য সংকট আরও তীব্র হবে বলে আশ’ঙ্কা করছে FAO।

কীটনা’শক শূন্য দেশ
প’ঙ্গোপাল মো’কা’বিলায় হিমশিম অবস্থা আফ্রিকার এই দেশগুলির। কেনিয়াতে কীট’না’শকের সং’কট দেখা দিয়েছে। কৃষিজমিতে কী’টনা’শক ছড়ানোর জন্য ইথিয়োপিয়ায় আরও বিমান প্রয়োজন। এদিকে, গৃ’হ’যু’দ্ধে ক্ষ’ত’বি’ক্ষ’ত সোমালিয়া এবং ইয়েমেন পঙ্গপালদের আ’ক্র’মণ থেকে ফসল কতটা সুরক্ষিত রাখতে পারবে, তা নিয়ে প্রশ্নচিহ্ন আছে।

কৃষকের সর্ব’নাশ
পঙ্গ’পালরা খাবারের জন্য ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে বেড়ায়। একেক ঝাঁকে কয়েক লাখ থেকে এক হাজার কোটি পতঙ্গ থাকতে পারে। আর যে যেখানে তারা একবার আ’ক্র’মণ করে, সেখানে খাদ্য শেষ না হওয়া পর্যন্ত যায় না। ফলে একবার কোনও এলাকায় পঙ্গ’পাল আ’ক্র’ম’ণ করলে ফসলের দফারফা হয়।

উগান্ডায় নামল সেনা
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে উগান্ডায় ইতোমধ্যে সেনাবাহিনীকে মোতায়েন করা হয়েছে। ফসলে কী’ট’নাশক ছড়ানোর জন্য প্রশিক্ষিত কয়েকশো যুবককে নামিয়েছে কেনিয়া। এ দিকে, সোমিলিয়া কীটনাশক শূন্য। এই পরিস্থিতিতে সে দেশে পঙ্গ’পা’লের ঝাঁক লক্ষ্য করে আকাশে বিমান বি’ধ্বং’সী বন্দুক থেকে গু’লি ছুঁড়ছে সেনাবাহিনী।

মার্চে নতুন বিপদ
আগামী মার্চ মাসে ফসলে নতুন পাতা বেরোবে। সে সময় আরও এক দফায় পঙ্গপালের আ’ক্র’মণের স’ত’র্ক’বার্তা জানিয়েছে রাষ্ট্রপুঞ্জ। এই সময় ফসল বাঁচানোই এখন কৃষকদের কাছে চ্যালেঞ্জ।

সময়ের সঙ্গে লড়াই
নতুন ফসল রক্ষা করাই এখন পূর্ব আফ্রিকার কৃষকদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কারণে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফসল রক্ষায় লড়াই চালাচ্ছেন তাঁরা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন