ঘরে ঘুমিয়ে থাকা নারীর গলাকা’টা লা’শ মিলল বাঁশঝাড়ে!

প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২০ / ০৯:৫২অপরাহ্ণ
ঘরে ঘুমিয়ে থাকা নারীর গলাকা’টা লা’শ মিলল বাঁশঝাড়ে!

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় একটি বাঁশঝাড় থেকে হেনা আক্তার (৪১) নামে এক নারীর গলাকা’টা লা’শ উ’দ্ধা’র করেছে পুলিশ।

রোববার সকালে উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামের কুমাড়কাটা এলাকা থেকে তার লা’শ উ’দ্ধা’র করা হয়। পুলিশ, র‌্যাব, ডিবি ও সিআইডি এ ঘটনা তদন্ত করছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ জনকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামের রফিকুল ইসলাম রবির দ্বিতীয় স্ত্রী তিন সন্তানের জননী হেনা আক্তার একই গ্রামের বড় মেয়ের স্বামী সাদ্দামের বাড়িতে শনিবার দুপুরে বেড়াতে যান।

রাতে হেনা আক্তার ছোট মেয়ে শ্রাবণী (৭) ও মেয়ের শাশুড়ি সমলা আক্তারের (৬০) সঙ্গে পাশের রুমে ঘুমাতে যান। রোববার ভোরে হেনা আক্তারকে ঘরে না পেয়ে পরিবার ও স্থানীয় লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে।

একপর্যায়ে বাড়ির পশ্চিম পাশের বাঁশঝাড়ে গলাকা’টা অবস্থায় লা’শ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়া হয়। সকালে পুলিশ তার লা’শটি উ’দ্ধা’র করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নি’হ’তের মেয়ে জামাই সাদ্দাম হোসেন, তার মা সমলা খাতুন ও সাদ্দামের মামা শফিকুল ইসলাম।

খবর পেয়ে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়দার আলী চৌধুরী, ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন, ময়মনসিংহ ক্রিমিনাল ইন্টারোগেশন ডিপার্টমেন্টের (সিআইডি) এসআই তাপস দেবনাথের নেতৃত্বে একটি দল, র‌্যাব-১৪ ও ডিবি পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

নি’হ’তের মেয়ে মিলি আক্তার জানান, তার মা শনিবার দুপুরে বেড়াতে এসে রাতে তার শাশুড়ি ও আমার ছোট বোনকে সঙ্গে নিয়ে ঘুমাতে গিয়ে রাতের কোনো এক সময় দরজা খুলে ঘর থেকে বেরিয়ে যান।

নি’হ’তের বড় ভাই মোর্শেদ আলম জানান, আমার বোন অন্যত্র বিয়ে করার পর আমাদের সঙ্গে তার তেমন যোগাযোগ ছিল না। আমার ভাগ্নিদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ হতো।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম জানান, হেনা আক্তার আট মাস আগে স্বামী আবদুল মতিনকে ডি’ভোর্স দিয়ে ননদের জামাই রফিকুল ইসলাম রবিকে বিয়ে করে বিভিন্ন স্থানে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকত। শনিবার দুপুরে হেনা আক্তার তার মেয়েজামাইর বাড়ি বেড়াতে গিয়ে এ হ’ত্যা’র শি’কা’র হন।

ময়মনসিংহ সিআইডির এসআই তাপস দেবনাথ জানান, খু’নে’র আলামত সংগ্রহ করেছি। মা’ম’লাটি তদন্ত করবে পুলিশ, আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে পুলিশের সহযোগিতা করতে এসেছি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হায়দার চৌধুরী জানান, উ’দ্ধা’রকৃত নারীর লা’শটি গ’লা’কাটা অবস্থায় একটি জ’ঙ্গ’ল থেকে উ’দ্ধা’র করে ম’র্গে প্রেরণ করা হয়েছে। হ’ত্যা র’হস্য উৎঘাটনের জন্য পুলিশ, র‌্যাব ও সিআইডি এ ব্যাপারে তদন্ত করছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন