জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২০ / ১২:৫২অপরাহ্ণ
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সাদা পোশাকে জয়ের স্মৃতি নিয়ে আজ রোববার ওয়ানডে মিশন শুরু করছে বাংলাদেশ। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আজ সফরকারীদের মুখোমুখি হচ্ছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ম্যাচটিতে এরই মধ্যে টস অনুষ্ঠিত হয়েছে। টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ।

এ সিরিজ দিয়ে দীর্ঘদিন পর ক্রিকেটে ফিরেছেন অধিনায়ক মাশরাফি। দেশের হয়ে সর্বশেষ বিশ্বকাপে খেলেছেন তিনি। গত বছরের ৫ জুলাই পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের পর আর দেখা যায়নি তাঁকে। এ ছাড়া দেশের মাটিতে ১৫ মাস আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক। সাত মাসের লম্বা বিরতি দিয়ে অধিনায়কের ফেরাটা স্বস্তির বটে। কিন্তু নানা বিতর্কে সেটা অনেকটা অস্বস্তির হয়েই দাঁড়িয়েছে। সব বিতর্ক পেছনে ফেলে ফের দেশকে নেতৃত্ব দিতে মাঠে নেমেছেন তিনি।

ক্রিকেটের লড়াইয়ে জিম্বাবুয়ের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে বাংলাদেশ। গত সাত বছরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে কোনোটিতেই হারেনি লাল-সবুজের দল। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশে জিম্বাবুয়ের সবশেষ জয় সেই ২০১০ সালে। সব মিলিয়েই তাই লড়াই শুরুর আগে বাতাসে নেই লড়াইয়ের ঝাঁঝ।

তবুও মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি জানালেন, কোনোভাবেই জিম্বাবুয়েকে ছোট করে দেখছেন না তিনি। বরং ছোট ফরম্যাটে জিম্বাবুয়েকে বেশ শক্তিশালী মানছেন স্বাগতিক অধিনায়ক।

গতকাল শনিবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেন, ‘ছোট ফরম্যাটে জিম্বাবুয়ে বেশ শক্তিশালী। এই ফরম্যাটে তারা অনেক অভিজ্ঞ। অবশ্যই আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চাই। আমরা প্রথম ওয়ানডে দিয়ে শুরু করছি। এরপর দ্বিতীয় ও তৃতীয় ম্যাচে খেলব। এটা বলা মুশকিল যে, আমরা তিন ম্যাচেই জয় পাব। তবে জয় দিয়ে শুরু করাটাই গুরুত্বপূর্ণ।’

সতীর্থদের সতর্ক করে মাশরাফি আরো বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের কাছে আমরা হারতেও পারি। এমন তো না যে আমরা জিম্বাবুয়ের কাছে আগে হারিনি। যে ম্যাচগুলো আমরা জিতেছি, এর মধ্যে কিন্তু দু-তিনটি ছিল যে আমরা প্রায় হারা ম্যাচ জিতে গেছি। তার মানে, তারা আমাদের হারাতে পারে। সুতরাং অতটুকু নিশ্চিত হয়েই আমাদের ক্রিকেট খেলতে হবে।’

অবশ্য প্রতিপক্ষ হিসেবে দুর্বল হলেও ভাবছে না জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের স্পিন শক্তির বিপক্ষে লড়তে প্রস্তুত সফরকারীরা। দলটির অধিনায়ক চামু চিবাবা বলেন, ‘বাংলাদেশ দল থেকে কী প্রত্যাশা করতে পারি, সেটা নিয়ে আমরা নিজেরা আলোচনা করেছি। এটা স্পষ্ট, যখনই আমরা এখানে এসেছি, প্রচুর স্পিনের মুখোমুখি হয়েছি। বাংলাদেশের স্পিন মোকাবিলা করতে অনেক কাজ করেছি। আমরা নিজেদের দক্ষতার উন্নতিও করছি। সব মিলিয়ে আমরা তৈরি।’

বাংলাদেশ ওয়ানডে দল : মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ নাঈম, আল-আমিন হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, শফিউল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুস্তাফিজুর রহমান।

জিম্বাবুয়ের ওয়ানডে দল : চামু চিবাবা (অধিনায়ক), তিমিসেন মারুমা, সিকান্দার রাজা, ক্রেইগ আরভিন, তিনাশে কামুনহুকামওয়ি, ওয়েসলি মাদভেরে, ক্রিস্টোফার এমপফু, টিনোতেন্দা মুতুমবোজি, কার্ল মুম্বা, রিচমন্ড মুতুম্বামি (উইকেটরক্ষক), আইনসলে এনদোভু, ব্রেন্ডন টেলর, ডোনাল্ড টিরিপানো, চার্লটন টিসুমা ও শন উইলিয়ামস।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন